শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:০৮

লামায় বেড়াতে গিয়ে মুক্তিপণ না পেয়ে মামাতো ভাইকে হত্যা

বান্দরবান প্রতিনিধি

Google News

বান্দরবানের লামায় বেড়াতে গিয়ে ফুফাতো ভাইয়ের হাতে খুন হওয়া মামাতো ভাই হাফেজ মো. অলি উল্লাহ স্বাধীনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ২৫ দিন আগে জিম্মি করে মুক্তিপণ না  পাওয়ায় খুনের ঘটনা ঘটায় ফুফাতো ভাই আরিফুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা। ঘটনাটি  ঘটানো হয় উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়নের শিং ঝিরি এলাকায়।

পুলিশ জানায়, খুন করে লাশ মাটি চাপা  দিয়ে রাখা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ  ঘাতক  ফুফাতো ভাইসহ দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে। পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা জেলার  দেবিদ্বার থানার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর  গ্রামের মোবারক হোসেনের পুত্র হাফেজ মো. অলি উল্লাহ স্বাধীন (১৭) গত ২২ মার্চ তার ফুফাতো ভাই  (একই গ্রামের মৃত আব্দুল গণি খাঁ এর ছেলে) আরিফুল ইসলামের (১৭) সঙ্গে বেড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। স্বাধীনের বড় ভাই রিয়াজ উদ্দিন সোহেল জানান, ‘কয়েকদিন যাবত ছোট ভাইয়ের কোন খোঁজ খবর না পেয়ে আমরা গত ২৪ মার্চ কুমিল্লার  বুড়িচং থানায় হারানোর জিডি করি। এর পরই নিখোঁজ ভাইয়ের হাত পা বাঁধা ছবি পাঠিয়ে ঘাতকরা ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এরপর আমাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী লামা থানা পুলিশ মঙ্গলবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন হিসেবে ফুফাতো ভাই আরিফুল ইসলাম ও কুমিল্লার বুড়িচং থানার খারাতাইয়া  গ্রামের আবদুুল মালেকের ছেলে ফয়েজ আহমদকে (৩৮) আটক করে।’ পুলিশ জানায়, ‘আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ হাফেজ অলি উল্লাহ স্বাধীনকে হত্যা করে মাটি চাপা দেওয়ার তথ্য পায়। এরপর তারা গতকাল ভোর রাতে অভিযান চালিয়ে  উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা শিং ঝিরিস্থ পাহাড়ের উপরে মাটি খুঁড়ে নিহত হাফেজ স্বাধীনের লাশ উদ্ধার করে।’