শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৩ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ মে, ২০২১ ২৩:৪০

মে মাসেও ঊর্ধ্বমুখী মৃত্যু

২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১ হাজার ৩৫৯, মৃত্যু ৬৯

নিজস্ব প্রতিবেদক

মে মাসেও ঊর্ধ্বমুখী মৃত্যু

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্তের পর গত এপ্রিল মাসে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখেছে দেশের মানুষ। তবে চলতি মে মাসেও ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে মৃত্যু। গত দুই দিনে মারা গেছেন ১২৯ জন, যা গত মাসের প্রথম দুই দিনের মৃত্যুর চেয়ে ২০ জন বেশি। তবে চলতি মাসের প্রথম দুই দিনই সংক্রমণ হার ১০ শতাংশের নিচে রয়েছে। গত মাসে সংক্রমণ হারও হু হু করে বেড়ে ২৩ শতাংশ ছাড়িয়ে গিয়েছিল। ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে সংক্রমণ হার ছিল ৪ শতাংশের নিচে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের

তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। আগের দিন মারা যান ৬০ জন। গত এক দিনে ১৪ হাজার    ১৫৮টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৫৯ জনের দেহে। শনাক্তের হার ৯ দশমিক ৬০ শতাংশ। এই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬৫৭ জন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত দেশে মোট করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৭ লাখ ৬১ হাজার ৯৪৩ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১১ হাজার ৫৭৯ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬ লাখ ৮৭ হাজার ৩২৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৬৯ জনের মধ্যে ৪৪ জন ছিলেন পুরুষ ও ২৫ জন নারী। হাসপাতালে ৬৭ জনের ও বাড়িতে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বয়স বিবেচনায় ৪৪ জন ছিলেন ষাটোর্ধ্ব, ১১ জন পঞ্চাশোর্ধ্ব, ৭ জন চল্লিশোর্ধ্ব, ৩ জন ত্রিশোর্ধ্ব, ২ জন বিশোর্ধ্ব, ১ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ও ১ জনের বয়স ছিল ১১ বছরের কম। এর মধ্যে ৩৮ জন ঢাকায়, ১৪ জন চট্টগ্রামে, ৭ জন বরিশালে, ৫ জন খুলনায়, ২ জন রংপুরে এবং ১ জন করে মারা যান রাজশাহী, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগে। গতকাল দেশের কভিড-১৯ ডেডিকেটেড ১ হাজার ৯২টি আইসিইউর মধ্যে ৫৬৫টি ফাঁকা ছিল। এ ছাড়া ১২ হাজার ৩৪৭টি সাধারণ শয্যার মধ্যে ফাঁকা ছিল ৮ হাজার ৮৭৩টি। হাসপাতালে আইসিইউ ও শয্যা ফাঁকা থাকার পরও এখনো অধিকাংশ রোগীর চিকিৎসা চলছে বাড়িতে। আবার সংকটাপন্ন রোগীর জন্য নিকটবর্তী হাসপাতালে আইসিইউ না পাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। বাড়িতেই হচ্ছে মৃত্যু।