শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৯ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মে, ২০২১ ২৩:৪৫

ভারতে দৈনিক মৃত্যুর রেকর্ড, ৫০ জনই চিকিৎসক

প্রতিদিন ডেস্ক

Google News

মহামারী করোনাভাইরাসে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৩২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এটি সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫৫৩ জন। এদের মধ্যে রবিবার ৫০ চিকিৎসকের মৃত্যু নথিবদ্ধ হয়েছে বলে মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনটির তথ্যের বরাতে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫৫৩ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যাও আড়াই কোটি ছাড়াল। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ৫২ লাখ ২৮ হাজার ৯৯৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৩২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এখন পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ এখনো পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৭৮ হাজার ৭১৯ জনের। টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাতে জানা যায়, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, বিহার ও কেরালার মতো রাজ্যগুলোতে সংক্রমণ কমছে। তবে তামিলনাড়ু, কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশের সংক্রমণ পরিস্থিতি এখনো লাগাম ছাড়া। পশ্চিমবঙ্গেও গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার তিনজন।

এক দিনে ৫০ চিকিৎসকের মৃত্যু : ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) তথ্যে দেখা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রাণঘাতী দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতে ২৪৪ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে রবিবারই ৫০ জনের মৃত্যু নথিবদ্ধ হয়। এ ছাড়া, ভারতে এ পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে গত বছর সংক্রমণের প্রথম ঢেউয়ে ৭৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল আর চলতি বছর দ্বিতীয় ঢেউয়ে আরও ২৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে মাত্র তিন শতাংশ টিকার দুটি ডোজই নিয়েছিলেন। চলতি বছর সবচেয়ে বেশি চিকিৎসকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে ভারতের বিহার রাজ্যে, এখানে ৬৯ জন মারা গেছেন। এরপর উত্তর প্রদেশে ৩৪ জন ও দিল্লিতে ২৭ জন মারা গেছেন। আইএমএর সাধারণ সম্পাদক ডা. জায়েশ লেলে গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘গতকাল ভারতজুড়ে ৫০ জন চিকিৎসক মারা গেছেন আর এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর থেকে ২৪৪ জন, যা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।’