শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ মে, ২০২১ ২৩:৪২

মৃত্যু ও সংক্রমণ বাড়ছেই

দেশে ১৩ দিনের মধ্যে সর্বাধিক মৃত্যু, ১১ দিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

দেশে ১১ দিন পর গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও করোনাভাইরাস সংক্রমণ হার ১০ শতাংশ ছাড়িয়েছে। ১৩ দিন পর ফের দৈনিক মৃত্যু ছুঁয়েছে ৪০ জনে। এ ছাড়া সীমান্তবর্তী জেলাগুলোয় ভারতফেরত অনেকের দেহে করোনাভাইরাসের ভয়ঙ্কর ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্তের পর এবার চট্টগ্রামে মিলেছে আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট। এই পরিস্থিতিতে করোনা মহামারী নিয়ে ফের আতঙ্ক বাড়ছে।

চট্টগ্রাম থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, চট্টগ্রামে ভারতফেরত এক ব্যক্তির নমুনায় করোনাভাইরাসের আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট (বি.১.৩৫১) পাওয়া গেছে। গত ১৫ মে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ভারতফেরত ছয় বাংলাদেশির নমুনা পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়। এতে একজনের পজিটিভ শনাক্ত হয়। পরে জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ে তার নমুনায় আফ্রিকান ধরন পাওয়া গেছে। এর আগে যশোর, চুয়াডাঙ্গা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সাতক্ষীরাসহ সীমান্তের বিভিন্ন জেলায় ভারতফেরত অনেকের দেহে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ইউনুস গাজী নামের এক ব্যক্তি করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করলেও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন তার রিপোর্টে করোনা পজিটিভ আসে। তার দেহে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়। তিনি যশোর হাসপাতাল থেকে পালিয়ে সড়ক ও নৌপথ ঘুরে ঢাকা হয়ে চাঁদপুরে যান। পথে বেড়ান বিভিন্ন আত্মীয়ের বাসায়। পথে পথে ছড়ান করোনাভাইরাস। ছয় দিন পর চাঁদপুর থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। এভাবে দেশের বিভিন্ন জেলায় ছড়িয়ে পড়ছে ভয়াবহ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যানুযায়ী,     গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৬২৪টি নমুনা পরীক্ষায় ১ হাজার ৬৭৫ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১০ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ।

চলতি মাসে এর চেয়ে বেশি (১০ দশমিক ৮২ শতাংশ) সংক্রমণ হারের তথ্য জানানো হয়েছিল ১৪ মে। গত এক দিনে মারা গেছেন ৪০ জন। ১২ মের পর এত মৃত্যু আর হয়নি। ওই দিনও ৪০ জনের মৃত্যুর তথ্য জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২৭৯ জন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৩২ হাজার ৮১০ জন। মোট মারা গেছেন ১২ হাজার ৪৪১ জন। মোট করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৯২ হাজার ১৯৬ জন। এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে চট্টগ্রামে, যা মোট মৃত্যুর ৪৫ শতাংশ। তবে মহামারীর শুরু থেকে গতকাল পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সর্বোচ্চ ৫৭ দশমিক ২৯ শতাংশ হয়েছে ঢাকায় ও ১৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ হয়েছে চট্টগ্রামে। অন্য বিভাগগুলোয় মৃত্যুর হার ৭ শতাংশের নিচে। সবচেয়ে কম (২ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ) মৃত্যু হয়েছে ময়মনসিংহ বিভাগে। গত এক দিনে মৃতদের মধ্যে ২৬ জন ছিলেন পুরুষ ও ১৪ জন নারী। হাসপাতালে ৩৮ জনের ও বাড়িতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। বয়স বিবেচনায় মৃতদের মধ্যে ১৭ জন ছিলেন ষাটোর্ধ্ব, ১২ জন পঞ্চাশোর্ধ্ব, চারজন চল্লিশোর্ধ্ব, পাঁচজন ত্রিশোর্ধ্ব ও দুজনের বয়স ছিল ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। মৃতদের মধ্যে আটজন ঢাকা, ১৮ জন চট্টগ্রাম, চারজন রাজশাহী, তিনজন করে খুলনা, বরিশাল ও রংপুর এবং একজন সিলেট বিভাগে মারা গেছেন। ময়মনসিংহ বিভাগে গত এক দিনে কেউ মারা যাননি।

এই বিভাগের আরও খবর