শিরোনাম
বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

টাকার মালা পরে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর মিছিল

প্রতিদিন ডেস্ক

গাজীপুরের শ্রীপুরে টাকার মালা গলায় দিয়ে মিছিলের নেতৃত্ব দিয়ে এক চেয়ারম্যান প্রার্থী এলাকায় আলোচনা-সমালোচনার ঝড় তুলেছেন। ফেনী ও জামালপুরে বিনা ভোটে অন্তত ১১ জন নির্বাচিত হচ্ছেন। এ ছাড়া নির্বাচন নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা ঘটনার তথ্য পাঠিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিরা।

শ্রীপুর (গাজীপুর) : সোমবার দুপুরে শ্রীপুরে পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন উপলক্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন টাকার মালা গলায় দিয়ে মিছিলের নেতৃত্ব দেন। বরমী ইউপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নিজের প্রার্থিতা ঘোষণা দিয়েছেন। রবিবার তার এলাকা বরমী থেকে অর্ধসহস্রাধিক লোক নিয়ে হেঁটে শ্রীপুরের নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে আসেন। তিনি বরমী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমানের ছেলে। বরমী ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হক বাদল সরকারের মৃত্যুর পর তোফাজ্জল হোসেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান। টাকা দিয়ে মালা তৈরির এ ধরনের ঘটনাকে অশোভন হিসেবে দেখছেন এলাকাবাসী। অনেকেই বলছেন এটি যাচ্ছেতাই ব্যবহার। একজন প্রার্থীর পর্যায় থেকে সমাজে টাকার এমন ব্যবহারকে উৎসাহিত করা ঠিক নয় বলেও মনে করেন অনেকে। চেয়ারম্যান প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন এ বিষয়ে বলেন, ‘আমার সমর্থকরা আবেগের বশে টাকার মালা তৈরি করে গলায় দিয়েছেন। আমি বুঝতে পারিনি। নির্বাচনের সব আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। টাকার মালাটি আমি পরে খুলে রেখেছি।’ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কাজী মো. ইন্তাফিজুল হক আকন্দ বলেন, কোনো প্রার্থীর টাকার মালা গলায় দিয়ে এ ধরনের মিছিল করা অশোভন। এটা সুন্দর দেখায় না। এমনটা করা ঠিক না।

ফেনীতে বিনা ভোটে সাত চেয়ারম্যান : ফেনীতে বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত সাত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী। দাগনভূঞা উপজেলার ছয় ইউনিয়নের মধ্যে পাঁচটিতেই বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। এ ছাড়া সোনাগাজীর নয় ইউপির মধ্যে দুটিতে একক প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা। যেসব প্রার্থী বিনা ভোটে নির্বাচত হওয়ার পথে তারা হলেন- দাগনভূঞার সিন্দুরপুর ইউনিয়নে নূর নবী, রাজাপুর ইউনিয়নে জয়নাল আবেদীন মামুন, পূর্বচন্দ্রপুর মডেল ইউনিয়নে মাসুদ রায়হান, ইয়াকুবপুর ইউনিয়নে আবুল ফোরকান বুলবুল, মাতৃভূঞা ইউনিয়নে আবদুল্লাহ আল মামুন। সোনাগাজী উপজেলার নির্বাচিত হওয়ার পথে থাকা প্রার্থীরা হলেন- মোঙ্গলকান্দি ইউনিয়নে মোশারফ হোসেন বাদল ও মুতিগঞ্জ ইউনিয়নে রবিউজ্জামান বাবু।

মাদারগঞ্জে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ের পথে চারজন : জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে সাত ইউনিয়নের চারটিতেই আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। তারা হলেন- চরপাকেরদহ ইউনিয়নে মো. বদরুল আলম, বালিজুড়ী ইউনিয়নে মির্জা ফকরুল ইসলাম, জোড়খালী ইউনিয়নে মো. সুজা মিয়া ও ৬ নম্বর আদারভিটা ইউনিয়নে মো. মিজানুর রহমান। মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জামান হোসেন চৌধুরী জানান, এ চার ইউনিয়নে স্বতন্ত্র, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও জাতীয় পার্টি তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করায় আওয়ামী লীগের চারজনই বিজয়ের পথে।

বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় নয় আওয়ামী লীগ নেতাকে বহিষ্কার : চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে দলীয় নির্দেশ অমান্য করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ার নয় আওয়ামী লীগ নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তারা হলেন- কোটালীপাড়া উপজেলার পিঞ্জুরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু ছাইদ শিকদার, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ খালিদ হোসেন জমাদ্দার, সাবেক সহসভাপতি শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রমজান শরীফ, কুশলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি দুলাল হোসেন গাজী, আওয়ামী লীগ নেতা কদর আলী শেখ, আওয়ামী লীগের সদস্য সুশেন চন্দ্র সেন এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা রিংকু বাইন ও অরুণ কুমার বাইন।

নৌকা পেলেন হত্যা মামলার আসামি : যশোর সদর উপজেলার চাঁচড়া ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন জেলা শ্রমিক লীগের শ্রম ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সেলিম রেজা পান্নু। তিনি মাছ ব্যবসায়ী ইমরোজকে কুপিয়ে হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও চাঁদাবাজির অভিযোগ রয়েছে। এমন অভিযোগ তুলে মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে সোমবার যশোর প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী সাত নেতা। এদিকে সেলিম রেজা পান্নুর বিরুদ্ধে হত্যা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে যে মামলা হয়েছে তা ষড়যন্ত্রের অংশ বলে দাবি করছেন তার সমর্থকরা।

কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে গেলেন প্রার্থী : ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পক্ষিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আলাউদ্দিন সরদার কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে যাওয়ার পথে হামলার শিকার হয়েছেন। এতে তার প্রায় ১০ জন সমর্থক আহত হয়েছেন। এ ছাড়া আটটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে বলে দাবি করেন এই প্রার্থী। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বোরহানউদ্দিন উপজেলা সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আলাউদ্দিন সরদার জানান, তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. নাগর হাওলাদারের সমর্থনকারীরা তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছেন। এজন্য তিনি প্রতীক বরাদ্দের দিন কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে উপজেলা নির্বাচন অফিসে রওনা দেন। পথে তার সমর্থনকারীদের ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালান ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেন।

সিংড়ায় নয়জনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার : নাটোরের সিংড়া উপজেলার ইউপি নির্বাচনে নয়জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। তারা হলেন- কলম ইউনিয়নে সাদেকুল বাশার, জহুরুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন, হাতিয়ান্দহ ইউনিয়নে মীর হাবিবুর রহমান, লালোর ইউনিয়নে শাহ আলম, মুকুটমণি ও আবদুল জব্বার। ছাতারদিঘী ইউনিয়নে আবদুল জলিল, রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়নে মুকুল হোসেন। এ ছাড়া বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ইটালি ইউনিয়নে আরিফুল ইসলাম ও শেরকোল ইউনিয়নে লুৎফুল হাবিব রুবেল। এ ছাড়া সাতজন ইউপি সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ঝিনাইগাতীতে সাবেক ছাত্রদল নেতা পেলেন নৌকা : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে ছাত্রদলের সদ্য সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও মাদক মামলার আসামির হাতে নৌকা তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক বিরাট অংশ ও ভোটারের অভিযোগ, এখানে আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে অর্থের বিনিময়ে দলে নতুন আসা নেতা ও নানা কারণে বিতর্কিতদের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় একাধিক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এস এম আবদুল্লাহেল ওয়ারেছ নাঈম জানান, তৃণমূল থেকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যে তালিকা দিয়েছে সেটাই জেলা আওয়ামী লীগের মাধ্যমে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ কোনো হস্তক্ষেপ করেনি।

নোয়াখালীতে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি : নোয়াখালী সদর উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. দেলোয়ার হোসেন দেলু সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। গতকাল দুপুরে দাদপুর বাজারে নিজ নির্বাচনী কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

সান্তাহারে প্রথম নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী তৃপ্তি : বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউপি নির্বাচনে প্রথমবারের মতো নারী চেয়ারম্যান প্রার্থীকে ঘিরে বেশ আলোচনা চলছে। রাজশাহী বিভাগ থেকে একমাত্র তিনিই ২০০৯ সালে ঢাকায় শ্রেষ্ঠ নারী আত্মকর্মী হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে জাতীয় যুব পুরস্কার পান। নারী হিসেবে প্রার্থিতা ঘোষণার পর থেকে এলাকায় বেশ আলোচনা হচ্ছে তাকে নিয়ে। আলোচিত এই চেয়ারম্যান প্রার্থী হচ্ছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া নারী উদ্যোক্তা নাহিদ সুলতানা তৃপ্তি।

বগুড়ায় ফ্রীডম পার্টির নেতাকে মনোনয়ন : আদমদীঘির ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়নে উপজেলা ফ্রীডম পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল হক আবুকে দেওয়া চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টায় উপজেলার সান্তাহার শহর প্রেস ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়নবাসীর পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা হাফিজুল ইসলাম বেলাল।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মনোনয়নপ্রাপ্ত আবদুল হক আবু ফ্রীডম পার্টির চিহ্নিত নেতা। ১৯৮৭-৮৮ সালের দিকে আদমদীঘিতে ফ্রীডম পার্টিকে সুসংগঠিত করতে নিজ বাড়িতে কার্যালয় বানিয়ে উপজেলা ফ্রীডম পার্টির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি।

সর্বশেষ খবর