Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৩:৫৩
আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩৬

ড. কামালের গাড়িবহরে যেভাবে হামলা হলো

অনলাইন ডেস্ক

ড. কামালের গাড়িবহরে যেভাবে হামলা হলো
ছবিঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে দলীয় ও ঐক্যফ্রন্ট নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে রাজধানীর মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানাতে যান ড. কামাল হোসেন। সেখান থেকে ফেরার পথে তার গাড়িবহরে অতর্কিত হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

হামলায় বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানান, বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানানো শেষে বের হওয়ার সময় অনেক মানুষের জটলা দেখতে পাই। আমি আগে নিরাপদে বের হয়ে গেলেও পেছনে ড. কামাল হোসেন ও আ স ম রবের গাড়ি হামলার শিকার হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্মৃতিসৌধের প্রধান ফটকে ড. কামাল হোসেনের গাড়ি রাখা ছিল। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি যখন গাড়িতে বসতে যাচ্ছেন, তখন আচমকা ওই গাড়ির গ্লাস ভাঙচুর করা হয়। ড. কামালের পেছন পেছন যারা হেঁটে আসছিলেন, তাদেরও মারধর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানান, হামলার ছবি তুলতে গিয়ে কয়েকজন ফটো সাংবাদিকও আহত হন।

গণফোরামের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর লতিফুল বারী হামীমের অভিযোগ, ড. কামাল, আ স ম রবসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতারা বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বের হওয়ার সময় হামলার শিকার হন। ওই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসলামুল হকের সমর্থকরা তাদের গাড়িবহরে হামলা চালায়।

তিনি জানান, হামলায় কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। কামাল হোসেনের গাড়ি আগে বের হয়। তার পেছনের গাড়িতেই ছিলেন আ স ম আবদুর রব। হামলার ঘটনায় আ স ম আবদুর রবের গাড়ির চালক আহত হয়েছেন।

গণফোরাম নেতা জগলুল হায়দারের গাড়িসহ আরও কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয় এ সময়, যোগ করেন তিনি।

হামলার জন্য আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করেন লতিফুল বারী।

তিনি বলেন, হামলায় কামাল হোসেনের গাড়ি খুব বেশি ক্ষতিগ্রস্ত না হলেও বহরের পেছনে থাকা ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ স ম আবদুর রব, জগলুল হায়দার আফ্রিক, ঢাকা-১৪ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী সিদ্দিক সাজুর গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে ১০-১২ জন আহত হয়েছেন।

হামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান।

তিনি বলেন, ইটপাটকেল ছুঁড়ে ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায় একদল যুবক। ঐক্যফ্রন্ট নেতাকর্মীদের কিলঘুষি ও লাথি মারতে থাকে তারা। এতে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বেশ কয়েকজন আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনার বিবরণে জানান, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রধান গেট দিয়ে বের হচ্ছিলেন। এ সময় তার গাড়িবহরে লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা হয়। এ সময় পেছনে থাকা নেতাকর্মীরা কামালকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাদেরও বেধড়ক পেটানো হয়। এতে নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে বেশ কয়েকটি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করে হামলাকারীরা। এতে কয়েকজন মাথায়সহ রক্তাক্ত জখম হন। গুরুতর আহত কয়েকজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য