শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জুন, ২০২১ ২৩:১৩

নয়াপল্টনে পুলিশ-ছাত্রদল সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রদলের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশসহ বেশ কয়েকজন ছাত্রদল নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে। পুলিশ এ সময় ছয়জনকে আটক করে নিয়ে যায়। সংঘর্ষের পরপরই বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। গতকাল ময়মনসিংহ শহরের চরকালিবাড়ি এলাকায় ছাত্রদলের বিভাগীয় সভায় পুলিশের হামলার ঘটনার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা নয়াপল্টনে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ মিছিল বের করায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী একটি প্রতিবাদ মিছিল বের করলে পুলিশ পেছন থেকে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। ছাত্রদল সভাপতি ফজলুর রহমান খোকনের নেতৃত্বে মিছিলটি বের হয়। একই ঘটনার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আরও একটি মিছিল হয়।

পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিকী বলেন, হঠাৎ করে ছাত্রদলের কর্মীরা পল্টন এলাকায় রাস্তায় নেমে ভাঙচুর শুরু করে। পুলিশ বক্সে হামলা এবং গাড়িতে ভাঙচুর করে। পুলিশ জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ছাত্রদল কর্মীদের রাস্তা থেকে উঠিয়ে দেয়। এর আগে ময়মনসিংহে ছাত্রদলের বিভাগীয় আলোচনা সভাকে কেন্দ্র করে ওই সংঘর্ষে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবীবুর রশিদ হাবীবসহ প্রায় ২০ জন নেতাকর্মী আহত হন। এছাড়া কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুক হোসেন ও পরিদর্শক (অপারেশন) ওয়াজেদ আলীসহ ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানায়।

বিজয়নগরে পুলিশের প্রাইভেটকারসহ চার গাড়ি ভাঙচুর : রাজধানীর বিজয়নগর মোড়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) লোগো সংবলিত প্রাইভেটকারসহ চারটি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে। পুলিশের দাবি, ছাত্রদলের ঢাকা মহানগর উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব ও পশ্চিমের পূর্ণাঙ্গ কমিটি বিলুপ্তির জেরে ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা এ কান্ড ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গেছে, ওই চারটি গাড়ির একটি ঢাকার আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলামের প্রাইভেটকার, দুটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বাস এবং একটি মাইক্রোবাস। রমনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, বুধবার ছাত্রদলের চারটি ইউনিটের কমিটি বিলুপ্তির জেরে গতকাল বিকালে বিএনপি অফিসে ছাত্রদলের দুই পক্ষের হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে একটি পক্ষ সংশ্লিষ্ট এলাকার রাস্তায় লাঠিসোঁটা নিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করে। নাইটিঙ্গেল মোড়ে পুলিশ বক্স ভাঙচুর করে। মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) আবদুল আহাদ বলেন, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে সরকারি গাড়ি ভাঙচুরে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।