শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৮ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ জুন, ২০২১ ২৩:৪৩

রেকর্ড গড়ে কোয়ার্টারে ইতালি

ক্রীড়া ডেস্ক

রেকর্ড গড়ে কোয়ার্টারে ইতালি
Google News

চীনের প্রাচীর গড়ে তুলেছিলেন অস্ট্রিয়ার রক্ষণভাগ। সেই আঁটোসাঁটো রক্ষণ কোনোভাবেই ভাঙতে পারছিলেন না ইম্মোবিলরা। তাহলে কি গত ৩০ ম্যাচে অজেয় রবার্তো মানচিনির ইতালিকে নকআউটপর্ব থেকে ফিরে যেতে হবে? নির্ধারিত ৯০ মিনিট চারবারের বিশ্বচাম্পিয়ন ও ১৯৬৮ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নদের আটকে রাখে নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নকআউটপর্ব খেলতে নামা অস্ট্রিয়া। কিন্তু ম্যাচের ভাগ্য যেখানে লেখা ছিল ইতালির, সেখানে অস্ট্রিয়ার ইতিহাস লেখার সুযোগ কই। তাই ৮২ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়তে মানচিনি যে একাধিক পরিবর্তন আনেন ম্যাচে, তাতেই বাজিমাত। পরিবর্তিত ফুটবলার ফেদেরিকা চিয়েসা ও মাত্তেও পেসিস্নার গোলে ২-১ ব্যবধানে অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে ইতালি। অস্ট্রিয়ার একমাত্র গোলটি করেন সাসা কালাজিচ। কোয়ার্টারে মানচিনির শিষ্যদের প্রতিপক্ষ বেলজিয়াম-পর্তুগাল জয়ী দল। ইতালি শুধু সেরা আটেই উঠেনি, ৮২ বছরের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়েছে। টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়েন মানচিনির শিষ্যরা। এর আগে ১৯৩৫-১৯৩৯ সাল পর্যন্ত ভিত্তরি পোজ্জোর কোচিংয়ে ৩০ ম্যাচে অপরাজিত ছিল ইতালি। সর্বাধিক ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড যুগ্মভাবে ব্রাজিল ও স্পেনের।

দলের রেকর্ড গড়ার দিনে আরও একটি রেকর্ড গড়েন ফেদেরিকা চিয়েসা। ৯৫ মিনিটে গোল করলে ইউরোর ইতিহাসে বাবা ও ছেলের গোল করা দেখেছেন ফুটবলপ্রেমীরা। ১৯৯৬ সালে চেক রিপাবলিকের বিপক্ষে গোল করেছিলেন তার বাবা এনরিকো চিয়েসো। পরশু রাতে ২৫ বছর ১২ দিন পর ওয়েম্বলিতে ফেদেরিকো চিয়েসা গোল করে ইউরোর ইতিহাসে নাম লেখান। বাঁ প্রান্ত থেকে স্পিনসোলার ক্রসে বল নামিয়ে বাঁ পায়ের আড়াআড়ি শটে গোল করেন ১-০। ১০৫ মিনিটে গোল ব্যবধান ২-০ করেন পেসিস্না। ডি-বক্সে বেলোত্তি দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিতে চাইলেও পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকা পেসিস্নার গোল করেন।