শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০৬

মুক্তিযোদ্ধা বাতেনের পাওনা পরিশোধের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযোদ্ধা বাতেনের পাওনা পরিশোধের আহ্বান

মুক্তিযোদ্ধা ড. শেখ আবদুল বাতেনের ন্যায্য পাওনা অবিলম্বে পরিশোধের আহ্বান জানিয়েছেন ১৬ বিশিষ্ট নাগরিক। তারা সরকারের প্রতি এ আহ্বান জানিয়ে এক বিবৃতিতে বলেছেন, ১৯৮৪ ব্যাচের (প্রশাসন ক্যাডার) একজন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বাতেন। সরকারি সিদ্ধান্তে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ইউনিভার্সিটি অব নিউইয়র্কে পিএইচডি করার জন্য পাঠানো হয় তাকে। ২০০১ সালে তিনি দেশে ফিরে আসার পর তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার তাকে কাজে যোগ দিতে দেয়নি। আদালতের নির্দেশে যোগদানপত্র গ্রহণ করা হলেও ২০০৪ সালে চক্রান্ত করে সব রেকর্ড হারিয়ে গেছে বলে জানানো হয়। শিক্ষক, গবেষক, লেখক শেখ আবদুল বাতেনের বড় ভাই শেখ আউয়াল ২ নম্বর সেক্টরের একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা। দীর্ঘদিন বেতন-ভাতা বন্ধ থাকায় তার পরিবার আর্থিক সংকটে রয়েছে। আইন মন্ত্রণালয় থেকে তিনবার তার যোগদান করতে না দেওয়াকে আইনের লঙ্ঘন বলেও উল্লেখ করেছে তাদের প্রতিবেদনে। এর পরও তার প্রাপ্য সরকারি বেতন-ভাতা, অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা না দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে; যা খুবই উদ্বেগের। অবিলম্বে ড. বাতেনের চাকরির মেয়াদপূর্তির সুযোগদান ও আইনসংগত আর্থিক সুবিধা দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন সাবেক সচিব মো. শাহজাহান সিদ্দিকী বীরবিক্রম, অধ্যাপক এ কে এম সা’দউদ্দিন, অ্যাডভোকেট জেয়াদ-আল-মালুম, অধ্যাপক ড. এ কে মনোওয়ার উদ্দীন আহমদ, অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, ড. সলিমুল্লাহ খান, অধ্যাপক এ কে এম সালাহউদ্দীন, শিবনারায়ণ দাশ, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক মোজাম্মেল হোসেন, সাবেক সচিব আমিনুল ইসলাম ভূঁইয়া, কবি মাকিদ হায়দার, ড. আবুল বারকাত, অধ্যাপক ড. কাজী নুরুল ইসলাম, স্থপতি সাঈদা সুলতানা এ্যানি, গোলাম কুদ্দুস।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর