Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:০৭

পাঁচ বছর ধরে নেই বেতন ভাতা সম্মানী!

পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানবেতর জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক

পাঁচ বছর ধরে নেই বেতন ভাতা সম্মানী!

দেশের ৩২৭টি পৌরসভার মধ্যে ২৬০টি পৌরসভায় কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সর্বনিম্ন দুই মাস থেকে ৬৮ মাস পর্যন্ত বেতন-ভাতা ও সম্মানী বকেয়া পড়ে গেছে। গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত এই বকেয়ার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬৪২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে যারা অবসরে গেছেন তাদের বকেয়ার পরিমাণ ১২০ কোটি টাকা। আর পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলরদের কয়েক কোটি টাকার বকেয়া পাওনা আছে। আবার সরকারি কর্মচারীদের মতো পেনশন সুবিধা না থাকায় ৯৬৪ জন কর্মকর্তা/কর্মচারী অবসরে যাওয়ার পরেও তারা নিজেদের প্রাপ্য এখনো বুঝে পাননি। এতে করে এসব কর্মকর্তা-কর্মচারী বর্তমানে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। প্রসঙ্গত, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৩২৭টি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অন্যদের বেতন-ভাতা বাবদ মোট চাহিদার (প্রায় এক হাজার ২৪৯ কোটি) টাকার বিপরীতে সরকার অনুন্নয়ন বাজেটের আওতায় পৌরসভার অন্যান্য খাতের বেতন-ভাতা                 সহায়তা বাবদ মাত্র ১৩ কোটি ৬৭ লাখ টাকা বরাদ্দ করে। যা চাহিদার মাত্র ১ শতাংশেরও কম। অথচ পৌরসভা স্থানীয় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও অনুন্নয়ন খাতের বরাদ্দ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ম ই তুষার বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, পৌরসভা আয়ের প্রায় শতভাগ বেতন-ভাতা খাতে ব্যয় করা হলে সরকারের উন্নয়ন বাজেটের অধীন নির্মিত অবকাঠামোর রক্ষণাবেক্ষণ করা সম্ভব হয় না। এর ফলে অবকাঠামো থেকে প্রত্যাশিত সেবা পাওয়া যায় না। এ জন্য পৌরসভাকে শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলে মানসম্মত সেবা প্রদানের জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাসহ পেনশন সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের বেতনভাতা পরিশোধের জন্য আগামী বাজেটে অর্থ বরাদ্দের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছে পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

 

 


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর