Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জুন, ২০১৯ ২৩:৩৬

চসিক মেয়রের সঙ্গে সাক্ষাৎ ভারতীয় হাইকমিশনারের

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চসিক মেয়রের সঙ্গে সাক্ষাৎ ভারতীয় হাইকমিশনারের

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সঙ্গে গতকাল নগর ভবনে ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাশ সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

এ সময় সিটি মেয়র বলেন, ‘ভারত আমাদের অকৃত্রিম বন্ধু। মুক্তিযুদ্ধে ভারতের ভূমিকা এক অনবদ্য ইতিহাস। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীসহ সমগ্র ভারতবাসীর কিংবদন্তিতুল্য সাহায্য-সহযোগিতা ও আত্মত্যাগের সফল পরিণতি বাংলাদেশ। এমনকি সে সময়ে ভারত বাংলাদেশের প্রায় এক কোটি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়ে মহানুভবতার             পরিচয় দিয়েছিল।’ তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা বিগত ১০ বছরে অনেকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বে-টার্মিনাল, কন্টেইনার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়িত হলে বর্তমানে বন্দরে যে সক্ষমতা আছে, তা দ্বিগুণ হবে। বর্তমানে বন্দরে প্রতিনিয়ত ১০ থেকে ১২ হাজার পরিবহন গমনাগমন করে থাকে।’ হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাশ বলেন, ‘চট্টগ্রাম সম্ভাবনাময় একটি শহর। উন্নয়নের ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম অনেক দূর এগিয়েছে। ইতিপূর্বে আমি চট্টগ্রামে এসেছি। কিন্তু এ রকম সৌন্দর্যময় দেখিনি। চট্টগ্রামের এ উন্নয়নে আমি বিস্মিত। বাংলাদেশ দিন দিন উন্নত হোক- ভারত তা-ই চায়। এতে ভারতের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। বাংলাদেশকে ভারত সব সময় বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র হিসেবেই দেখে।’ তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রাম বন্দরের বহুমুখী ব্যবহারের মাধ্যমে সেভেন সিস্টারসহ দুই দেশের জনগণের আর্থিক উন্নতি সম্ভব। চট্টগ্রাম বন্দর শুধু বাংলাদেশের নয়, পুরো অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে। তাই চট্টগ্রাম বন্দরের বহুমুখী ও সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করা গেলে এ অঞ্চলে শ্রমবাজার, কর্মসংস্থান, পুঁজি বিনিয়োগ, অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং দুই দেশের জনগণের আর্থিক উন্নতি ঘটবে।’ এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জি,  কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামসুদ্দোহা, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম ও প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ এ কে এম রেজাউল করিম প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর