Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৭ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৪৮

খুলনায় সরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

খুলনায় সরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা নিয়ে ক্ষোভ

খুলনার সরকারি হাসপাতালে অপ্রতুল স্বাস্থ্যসেবা, চিকিৎসক ও অবকাঠামো সংকট, সরকারি ওষুধ না থাকা, কর্মস্থলে চিকিৎসকের অনুপস্থিতি ও আন্তরিকতার অভাবসহ নানা প্রশ্নবাণে জর্জরিত হয়েছেন খুলনার সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আবদুর রাজ্জাক। এ সময় প্রশ্নের জবাবে সিভিল সার্জন বলেন, খুলনার তেরখাদা, বটিয়াঘাটা, দিঘলিয়াসহ সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধিকাংশ চিকিৎসকের পদ শূন্য। লোকবলের অভাবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে দীর্ঘদিন ধরে অপারেশন বন্ধ রয়েছে। সীমিত জনবল দিয়ে কাক্সিক্ষত স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া সম্ভব নয়। গতকাল খুলনার একটি হোটেলে ‘সরকারি হাসপাতালে মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ’ বিষয়ক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। বেসরকারি সংগঠন সুন্দরবন একাডেমি এডভোকেসি টিম এই সেমিনারের আয়োজন করে।

উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে বক্তারা বলেন, খুলনার সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিলেও অধিকাংশ ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হয়। হাসপাতাল থেকে বলা হয় ওষুধ সরবরাহ নেই। আবার ওই সরকারি ওষুধ বাইরে কালোবাজারে বিক্রি হয়।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, সরকারি হাসপাতালের ওষুধ চোর সিন্ডিকেটকে ধরতে চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, একজন চিকিৎসককে আউটডোরে প্রতিদিন গড়ে ১০০ রোগী দেখতে হয়। ৫০০ শয্যার মেডিকেল হাসপাতালে রোগী ভর্তি থাকে এক হাজার ১০০ থেকে এক হাজার ২০০। একজন চিকিৎসককে একই সঙ্গে এত রোগীকে প্রত্যাশিত স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া সম্ভব হয় না। এ ছাড়া হাসপাতালের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য পর্যাপ্ত জনবল নেই। তারপরও আমরা প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে প্রত্যাশিত সেবা দেওয়ার চেষ্টা করছি।

সেমিনারে খুলনার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, এনজিও প্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর