শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০২:১৬

বৃষ্টিভেজা রাজধানীতে শিল্পের সুষমা

সংস্কৃতি

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

বৃষ্টিভেজা রাজধানীতে শিল্পের সুষমা

শরতেও দিনভর আষাঢ়ের বৃষ্টি। ঝিরিঝিরি সেই বৃষ্টিতে ভিজে একাকার রাজধানী। এই বৃষ্টিতেও দুরন্তপনা ও শিল্পের সাধনায় মেতে উঠেছিল সারা দেশ থেকে আগত শিশুশিল্পীরা। বিকাল থেকে রাত অবধি একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হল, স্টুডিও থিয়েটার হল, সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তন, চিত্রশালাসহ পুরো একাডেমি প্রাঙ্গণ ছিল উৎসবমুখর। জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসবের ষষ্ঠ দিন গতকাল দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত শিশুরা মুখরিত করে রাখে পুরো একাডেমি। এদিন বিকালে জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে বন্ধুমহল শিল্পী সংস্থা গাজীপুরের শিশুরা পরিবেশন করে নাটক ‘দুখুরামের অরূপ কথা’, ঠাকুরগাঁওয়ের শিশুরা পরিবেশন করে নাটক ‘আজব দেশের গল্প’, রংপুর শিশু নাট্য কেন্দ্র মঞ্চায়ন করে ‘মাইডাসের স্বপ্ন স্বর্ণ’, ঢাকার পিদিম থিয়েটার মঞ্চায়ন করে ‘চাঁদের দেশে’। একই সময়ে স্টুডিও থিয়েটার হলে আবৃত্তি, একক অভিনয় ও বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ পরিবেশন করে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, রংপুর, গাজীপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও মানিকগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমির খুদে শিল্পীরা। সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে নাটক মঞ্চায়ন করে মানিকগঞ্জ, পঞ্চগড় ও ঢাকার শিশু শিল্পীরা।

এ ছাড়া চিত্রশালা মিলনায়তনে একক সংগীত, সমবেত সংগীত ও সমবেত নৃত্য পরিবেশন করে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, রংপুর, গাজীপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, টাঙ্গাইল ও মানিকগঞ্জের শিশু শিল্পীরা। ৬৪ জেলার সাংস্কৃতিক দল ও ৯৫টি শিশু নাট্য সংগঠনের ১০ হাজারের বেশি শিশু অংশ নিচ্ছে এবারের উৎসবে। প্রতিদিন আটটি ভেন্যুতে নয়টি জেলার ৮৫টি পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২৮ সেপ্টেম্বর শেষ হবে নয় দিনের এই শিশুতোষ উৎসব।

জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপনের সেমিনার : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী বক্তৃতা অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ’বিষয়ক একক বক্তৃতা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে জাতীয় জাদুঘর। গতকাল বিকালে জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনের এ আয়োজনে অংশ নেয় নটর ডেম কলেজের একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির ১০০ শিক্ষার্থী।

এতে আমন্ত্রিত শিক্ষার্থীদের মাঝে একক বক্তৃতা করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী। জাদুঘরের মহাপরিচালক মো. রিয়াজ আহম্মদের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তৃতা করেন জাদুঘরের সচিব মো. আবদুল মজিদ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর