শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৩৯

পুনর্বাসন কেন্দ্রে শিকলে বেঁধে শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

পুনর্বাসন কেন্দ্রে শিকলে বেঁধে শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল

বরিশাল নগরীর রূপাতলীর শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে দুই শিশুকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া ওই কেন্দ্রের শিশুদের দিয়ে ভারী কাজ করানোর অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীরা। শিকল দিয়ে বেঁধে রাখার ভিডিও ও লাকড়ি বহনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তোলপাড় শুরু হয়। ভিডিওতে দেখা যায়,       কেন্দ্রের বালক শাখার দুই শিশুর পায়ে শিকল লাগিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে। জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে ঝালকাঠির আদালত ওই দুই শিশুকে এই কেন্দ্রে পাঠায়। জিসান ও হযরত নামের ওই দুই শিশু কেন্দ্রে আসার কয়েক দিন পর থেকেই তাদের শিকল দিয়ে গাছের সঙ্গে তালা দিয়ে রাখা হয়। যার একটি ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। গতকাল শেখ রাসেল শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্রে গিয়ে জানা যায়, হযরত নামের শিশুটি বর্তমানে কেন্দ্রে রয়েছে। তবে নির্যাতনের শিকার জিসান পালিয়ে গেছে।

হযরত জানায়, জিসান কেন্দ্রের বড় ভাই মেহেদীর মারধরের ভয়ে পালিয়ে গেছে।

 আর ওই বড় ভাই এক কর্মকর্তার নির্দেশে তাদের দুইজনকে শিকল দিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে বেঁধে রাখে। মেহেদী ওই কর্মকর্তার নির্দেশের কথা তাদের জানায়। মেহেদী ওই কর্মকর্তার কাছ থেকে নানা সুবিধা নিয়ে প্রায়ই কেন্দ্রের শিশুদের মারধর করত। মেহেদী জানায়, তার কক্ষের দরজায় রাতে লাথি মারায় সে জিসান ও হযরতকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছিল। আর সেই শিকল সে কেন্দ্রের ভিতরেই পেয়েছে। কেন্দ্রের উপ-পরিচালক বাসুদেব দেবনাথ বলেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে, পালিয়ে যাওয়া শিশুটি অনেক চঞ্চল। শুরু থেকেই সে পালানোর চেষ্টা করছিল। নির্যাতনের কারণে পালিয়েছে এমন তথ্য সঠিক নয়।

বরিশাল জেলা প্রশাসক এস. এম অজিয়র রহমান জানান, শিশুদের শিকলে বেঁধে রাখাসহ নির্যাতনের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে অভিযুক্তদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর