শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪২

শঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান

আগামীতে কোনো ব্যাংক বন্ধ হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক

ব্যাংক আমানত সুরক্ষা আইনের সংশোধনীতে ব্যাংক বন্ধ বা অবসায়ন হলে গ্রাহক সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা পাবেন- এমন সংবাদে শঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। আগামীতে কোনো ব্যাংক বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। গতকাল কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর গ্রাহকের আমানতের সুরক্ষা দিতে আমানত বীমা আইন নিয়ে সাধারণ মানুষের বিভ্রান্তি দূর করতে এ সংবাদ সম্মেলন করে কেন্দ্র্রীয় ব্যাংক। সিরাজুল ইসলাম বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান টাকা রাখার পর যদি ওই প্রতিষ্ঠান অবসায়ন যায় তাহলে সব আমানতকারী মাত্র এক লাখ টাকা পাবেন- এমন খবর বলা হচ্ছে, এটা আসলে গুজব। আমানতের সুরক্ষা আইনে বলা হয়েছে, যদি কোনো ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অবসায়ন হয় তাহলে প্রথম ৯০ দিনের মধ্যে আবেদন ও পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে আমানতের সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। পরে আমানতের বাকি টাকা ব্যাংক কোম্পানি আইন অনুযায়ী ফেরত দেওয়া হবে।

 লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, বর্তমান বীমা তহবিলে সংরক্ষিত টাকার পরিমাণ অনুযায়ী ৯২ শতাংশ আমানতকারীর হিসাব সম্পূর্ণ বীমাকৃত। এর বাইরে ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৭৪ ধারা অনুসারে কোনো তফসিলি ব্যাংক অবসায়িত হলে ওই ব্যাংকের সম্পদ থেকে সব আমানতকারীর পাওনা পরিশোধের সুস্পষ্ট বিধান রয়েছে। আমানত সুরক্ষা আইন-২০২০ প্রবর্তনের পর ধারা ৭ অনুসারে ব্যাংকের ন্যায় আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আমানতকারীরাও এ অধিকার প্রাপ্য হবেন। তাছাড়া প্রস্তাবিত আইন মোতাবেক কভারেজের পরিমাণ দ্বিগুণ করা সম্ভব হলে প্রায় ৯৬ শতাংশ আমানতকারী সম্পূর্ণ বীমাকৃত হবে। ভবিষ্যতে শুধু এই তহবিল থেকেই শতভাগ আমানতকারীর আমানত বীমার আওতায় আসবে। তিনি আরও বলেন, প্রস্তাবিত ‘আমানত সুরক্ষা আইন-২০২০ তফসিলি ব্যাংকের পাশাপাশি আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহকেও আমানত সুরক্ষার আওতায় আনা হয়েছে। ফলশ্রুতিতে এ আইন বলবৎ হলে ব্যাংকের ন্যায় আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের আমানতকারীরাও সুরক্ষিত হবেন। এমতাবস্থায়, বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ দ্বারা জনগণকে বিভ্রান্ত বা আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর