শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০১:১৫

কোটা বহাল দাবিতে শাহবাগে অবরোধ, পুলিশের লাঠিচার্জ

আরও কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি আন্দোলনকারীদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

কোটা বহাল দাবিতে শাহবাগে অবরোধ, পুলিশের লাঠিচার্জ
সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালসহ সাত দফা দাবিতে গতকাল রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে অবরোধ করে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ - বাংলাদেশ প্রতিদিন

চাকরির ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালসহ সাত দফা দাবিতে গতকাল প্রায় সাত ঘণ্টা শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ নামে একটি সংগঠন। সন্ধ্যার দিকে লাঠিচার্জ ও জলকামান ব্যবহার করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এর আগে, সকাল থেকে অবরোধ শুরু করে সংগঠনটি। এতে প্রায় ৫ শতাধিক নেতা-কর্মী যোগ দেন। তারা বেলা ১১টা থেকে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন। ফলে মোড়ের চারপাশের রাস্তায় তীব্র যানজট তৈরি হয়। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আন্দোলনকারীদের কয়েকজনকে লাঠিচার্জ ও পাঁজাকোলা করে রাস্তা থেকে সরিয়ে নেয় পুলিশ। একপর্যায়ে জলকামানও ব্যবহার করা হয়। এতে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় আন্দোলনকারীরা। কয়েকজন পানিতে ভিজে রাস্তায় বসে থাকলে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ নামে সংগঠনের ঢাকা বিভাগের আহ্বায়ক হালদার মামুন বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান কর্মসূচি করছিলাম। এরমধ্যেই বিনা উস্কানিতে পুলিশ আমাদের ওপর হামলা চালায়। জলকামান ব্যবহার করে। এতে কয়েক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। আগামীতে আমরা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এ সময় একজনকে আটকের কথাও জানান তিনি। তবে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন অর রশিদ জানান, ‘কাউকে আটক করা হয়নি। তাদের উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে’। আন্দোলনকারীদের সাত দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, সব চাকরির ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহাল করা; সাংবিধানিক স্বীকৃতি ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সুরক্ষা আইন পাস করে মর্যাদা নির্ধারণ করা; মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের একজন প্রতিনিধিকে ভোটার এবং ১৯৭২-এর সংজ্ঞা অনুযায়ী ভুয়ামুক্ত তালিকা প্রণয়ন করা;  সিনেমা, সিরিয়াল নাটকে মন্দ চরিত্রে মুজিব কোট পরা নিষিদ্ধ করাসহ মন্দ লোকদের মুজিব কোট পরা যাবে না, এই মর্মে আইন পাস করা;  মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের পরিত্যক্ত সম্পত্তি দখলমুক্ত করে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করা; মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর হামলা নির্যাতন, জমি দখল এবং দুর্নীতি, মাদক, ধর্ষণের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখাসহ কঠোর আইন প্রণয়ন এবং হাসপাতাল, সরকারি অফিস, বিমানবন্দরসহ সর্বক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের ভিআইপি মর্যাদা দেওয়া।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর