শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ জুলাই, ২০২১ ২৩:৫১

খুলনায় কমছে করোনায় মৃত্যু

রাজশাহী মেডিকেলে এক মাসে মৃত ৫৬৬ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা ও রাজশাহী

খুলনায় কমছে করোনায় মৃত্যু
Google News

খুলনা জেলায় হঠাৎ করেই করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা মহানগরীর পাঁচটি হাসপাতালে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগী মারা গেছেন চারজন। প্রতিদিন কমছে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা। এতে স্বস্তি ফিরেছে চিকিৎসকদের মধ্যে।

জানা যায়, করোনার সংক্রমণ কমে যাওয়ায় হাসপাতালগুলোয় এরই মধ্যে ৩৮ শতাংশ শয্যা খালি হয়ে গেছে। গতকাল খুলনার পাঁচটি করোনা হাসপাতালে ৫৬৫টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিলেন ৩৪৬ জন। এর মধ্যে জেনারেল হাসপাতালে ৮০ শয্যা করোনা ইউনিটে ছিলেন ৪০ জন। ২০০ শয্যার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১৩৩, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫০ শয্যার বিপরীতে ৭০ আর ৯০ শয্যার সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৬১ জন ভর্তি ছিলেন। শুধু শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ৪৫ শয্যার ইউনিটে ৪২ জন ভর্তি রয়েছেন। খুলনা সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানান, ঈদুল আজহার আগে করোনায় মৃত্যু প্রতিদিন গড়ে ৯ থেকে ১৯ পর্যন্ত থাকলেও বর্তমানে তা ৪ থেকে ১১-তে নেমেছে। একইভাবে নমুনা পরীক্ষার ভিত্তিতে সংক্রমণ ২৮ থেকে ৩৬ শতাংশ থাকলেও বর্তমানে তা ১৯ থেকে ২৬ শতাংশে নেমেছে। জেলা সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ জানান, টানা লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধির প্রভাব পড়তে শুরু করেছে খুলনায়। প্রতিনিয়ত সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা কমে আসছে। এতে চিকিৎসকদের মধ্যে স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে। জানা যায়, ৩০ জুলাই খুলনার পাঁচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আটজন, ২৯ জুলাই ১৫ জন, ২৮ জুলাই নয়জন ও ২৭ জুলাই আরও নয়জন মারা যান। গতকাল খুলনা জেলায় ৫৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। আক্রান্তের হার ২৪ শতাংশ। এর আগে ৩০ জুলাই ২৩ শতাংশ, ২৯ জুলাই ২৩ শতাংশ ও ২৮ জুলাই ২১ শতাংশ করোনা শনাক্ত হয়। খুলনা জেলায় এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৬২৪ জন। করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ২৩ হাজার ৭৭৬ জন আর সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৪৪৬ জন। এদিকে জেলার পাশাপাশি খুলনা বিভাগেও করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত সংখ্যা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে বিভাগে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় শনাক্ত হয়েছেন ৫৭১ জন। এর আগে ৩০ জুলাই বিভাগে ৩৪ জনের মৃত্যু ও ৭৯৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায়। বাকিদের মধ্যে খুলনায় চারজন, যশোর ও ঝিনাইদহে তিনজন করে, চুয়াডাঙ্গায় দুজন, বাগেরহাট ও মেহেরপুরে একজন করে মারা গেছেন।

এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনা ইউনিটে এক মাসে ৫৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকেই এটিই এক মাসে মৃত্যুর সর্বোচ্চ সংখ্যা।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, ১ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত মারা যাওয়া ৫৬৬ জনের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর মৃত্যু হয়েছে ১৮৪ জনের। আর শ্বাসকষ্টসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়ার পর নমুনা পরীক্ষার আগেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে ৩৪৪ জন। বাকি ৩৮ জন মারা যায় করোনামুক্ত হয়েও পরবর্তী স্বাস্থ্য জটিলতা নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায়। তিনি আরও জানান, এর আগে গত জুন মাসে এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান ৪০৫ জন। এর মধ্যে করোনা পজেটিভ হওয়ার পর মারা গেছেন ১৮৯ জন। বাকিরা মারা যায় করোনার উপসর্গ নিয়ে নমুনা পরীক্ষার আগেই। এছাড়াও চলতি বছরের জানুয়ারিতে ২৯, ফেব্রুয়ারিতে ১৭, মার্চে ৩১, এপ্রিলে ৭৯ ও মে মাসে ১২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত বছরে সর্বোচ্চ মৃত্যু ছিল জুলাই মাসে ১১১ জন। এ ছাড়াও গত বছরের মে মাসে পাঁচজন, জুন মাসে ৩৭ জন, আগস্টে ৯৭ জন, সেপ্টেম্বরে ৫০ জন, অক্টোবরে ২৮ জন, নভেম্বরে ৩১ জন এবং ডিসেম্বর মাসে মারা যায় ৩৪ জন।

এই বিভাগের আরও খবর