বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা
সংসদীয় কমিটি

সংশোধন ছাড়াই দুই বিল চূড়ান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক

কোনো সংশোধন না থাকায় ‘বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী (এসএসএফ) বিল-২০২১’ ও ‘বিরোধীদলীয় নেতা এবং উপনেতা (পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার) বিল, ২০২১’ বিল দুটি হুবহু চূড়ান্ত করেছে সংসদীয় কমিটি। বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী (এসএসএফ) বিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্য ও অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের দৈহিক নিরাপত্তা প্রদানের বিধান রাখা হয়েছে। এ ছাড়া জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতাকে সরকারের একজন মন্ত্রীর জন্য ধার্য বেতন, ভাতা, অন্যান্য বিশেষাধিকার প্রদান এবং বিরোধীদলীয় উপনেতাকে একজন প্রতিমন্ত্রীর সমান বেতন, ভাতা ও অন্যান্য বিশেষাধিকার প্রদানের বিধান রাখা হয়েছে। সংসদ ভবনে গতকাল অনুষ্ঠিত আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১৬তম বৈঠকে বিল দুটি চূড়ান্ত করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মো. শহীদুজ্জামান সরকার। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, মো. শামসুল হক টুকু, শামীম হায়দার পাটোয়ারী ও গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭৯ সালে জারিকৃত জাতীয় সংসদে ‘বিরোধীদলীয় নেতা ও উপনেতার পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার’-সংক্রান্ত অধ্যাদেশটি সামরিক শাসনামলের আইন হিসেবে আদালতের নির্দেশে বাতিল হয়ে যায়। পরে সংসদের কার্যপ্রণালি বিধি অনুযায়ী পূর্ণমন্ত্রীর পদমর্যাদায় ‘বিরোধীদলীয় নেতা’ এবং প্রতিমন্ত্রী মর্যাদায় ‘বিরোধীদলীয় উপনেতা’ নিয়োজিত হয়ে থাকেন। তাই এ বিষয়ে নতুন আইন করতে ৩ সেপ্টেম্বর সংসদে বিল উত্থাপন করা হয়।

বিলে বলা হয়েছে- বিরোধীদলীয় নেতা অর্থ স্পিকারের বিবেচনামতে সময় সময় যে সংসদ সদস্য সরকারি দলের বিরোধিতাকারী সর্বোচ্চসংখ্যক সদস্য নিয়ে গঠিত দল বা অধিসংঘের নেতা। বর্তমানে বেগম রওশন এরশাদ সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জি এম কাদের বিরোধীদলীয় উপনেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

‘বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী (এসএসএফ)’ বিল : ১৯৮৬ সালে জারিকৃত অধ্যাদেশ দিয়ে ‘বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনীর (এসএসএফ)’ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। সামরিক আমলে প্রণীত ওই আইন বাতিল করে বাংলায় নতুন আইন করতে এ বিলটি আনা হয়েছে। আগের আইনের বিষয়গুলোর পাশাপাশি নতুন করে যুক্ত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্য ও অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের দৈহিক নিরাপত্তা প্রদান।

বিলে জাতির পিতার পরিবারের সংজ্ঞায় বলা হয়েছে- বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা এবং তাদের সন্তানাদি ও ক্ষেত্রমতো ওই সন্তানাদির স্বামী বা স্ত্রী এবং তাদের সন্তানাদি। এ ছাড়া সরকারি গেজেট দিয়ে ঘোষিত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, কোনো বিদেশি রাষ্ট্রের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানও এ আইনের অধীনে নিরাপত্তা পাবেন।

বিলে বলা হয়েছে- তল্লাশি, আটক, ও গ্রেফতারের ক্ষেত্রে ক্ষমতাসহ থানার একজন ওসির যেসব ক্ষমতা আছে, এসএসএফের একজন কর্মকর্তার এ আইনের অধীনে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে সারা দেশে সেই ক্ষমতা থাকবে।

বৈঠকে লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সচিব ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ খবর