শিরোনাম
শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা

অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার পেলেন আফরোজা পারভীন

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে কবি, কথাসাহিত্যিক ও প্রাবন্ধিক আফরোজা পারভীন পেলেন ‘অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার-১৪৩০’। গতকাল বিকালে জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে আন্ষ্ঠুানিকভাবে তার হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কার হিসেবে আফরোজা পারভীনকে সম্মাননা ক্রেস্ট, শুভেচ্ছাপত্র, ১ লাখ টাকার চেক এবং উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই আফরোজা পারভীনের ওপর নির্মিত তথ্যচিত্র প্রদর্শনী ও লেখকের গ্রন্থালোচনা করা হয়। পাক্ষিক অনন্যা ও দৈনিক ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কথাসাহিত্যিক হামীম কামরুল হক ও নাসরীন মুস্তাফা। সাহিত্যের সব ক্ষেত্রে রয়েছে আফরোজা পারভীনের অবাধ পদচারণা। ছোটগল্প, উপন্যাস, শিশুতোষ, রম্য, স্মৃতিকথা, অনুবাদ, গবেষণা ক্ষেত্রে প্রকাশিত গ্রন্থসংখ্যা ১২৫টি। বিটিভিতে প্রচারিত টিয়া সমাচার, ধূসর জীবনের ছবি, গয়নাসহ অনেক নাটকের রচয়িতা তিনি। অবিনাশী সাঈফ মীজান প্রামাণ্যচিত্র ও হলিউডে নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য ডিসিসড চলচ্চিত্রের কাহিনিকার। রক্তবীজ ওয়েব পোর্টালের সম্পাদক ও প্রকাশক।

অনুভূতি ব্যক্ত করে আফরোজা পারভীন বলেন, বাবা-মা আমাকে কখনই মেয়ে হিসেবে আলাদা করেননি। আমার স্বামী আমাকে  লেখার শুধু উৎসাহই দেননি, নিজের সাধ্যমতো লেখার উপকরণ কিনে দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। আমার সন্তানরা সব সময় উৎসাহ দিয়েছে। কিন্তু অনেক নারী আছেন তাদের প্রতিভা থাকলেও আমার মতো পরিবেশ এবং পরিবার পায় না। লেখার খাতা পায় না। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের দৃশ্যপট আমাকে লেখার অনুপ্রেরণা দেয়। চারপাশের প্রতিটি মানুষই এক একটি গল্প শুধু, তার ভিতরের গল্পটাকে জানতে হয়।

তাসমিমা হোসেন বলেন, মুক্তিযুদ্ধে অনেক মানুষের অবদান আছে। যা আফরোজা পারভীনের লেখায় আবারও প্রকাশ পায়। অনন্যা যোগ্য নারীকে সম্মাননা দিতে পেরে আনন্দিত।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর