শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ জুলাই, ২০২১ ২২:২৮
প্রিন্ট করুন printer

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা:

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার অনুমোদন
Google News

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) আরটি-পিসিআর ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষার অনুমোদন দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশে হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহের পরিচালক ডা. মো. ফরিদ হোসেন মিঞা স্বাক্ষরিত পত্রে এ অনুমোদনের কথা জানানো হয়। 

খুবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

পত্রে প্রচলিত বিধি অনুসরণ করে আরটি-পিসিআর ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষার পর আইইডিসিআর এর প্রত্যয়ন গ্রহণের অনুরোধ করা হয়েছে। পিসিআর ল্যাবের এই অনুমোদনের বিষয়টি খুলনা বিভাগের স্বাস্থ্য পরিচালক, আইইডিসিআর এর পরিচালক এবং খুলনার সিভিল সার্জনকেও অবহিত করা হয়েছে।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আরটি-পিসিআর ল্যাবকে সরকারিভাবে অনুমোদন দেওয়ায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী, স্বাস্থ্যসচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

জানা যায়, সরকারিভাবে বর্তমানে শুধুমাত্র খুলনা মেডিকেল কলেজে আরটি-পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়। কিন্তু প্রতিদিন এখানে সাত থেকে আটশ’ নমুনা জমা হলেও দু’টি পিসিআর মেশিনে পরীক্ষা করা হচ্ছে ৩৭৬টি। ফলে প্রতিদিন গড়ে তিন থেকে চারশ’ নমুনা আটকে যাচ্ছে।

এদিকে গত ১ জুলাই হঠাৎ ল্যাবে ‘জীবানু সংক্রমণ’ হলে চারদিন নমুনা পরীক্ষা বন্ধ ছিল। ওই সময় দুই হাজার নমুনা ঢাকা থেকে পরীক্ষা করানো হয়। ৪ জুলাই ল্যাবটি জীবানুমুক্ত হলে পিসিআর মেশিনে আবারও নমুনা পরীক্ষা শুরু হলেও চাপ কমানো যাচ্ছে না। ৯ জুলাই আবারও ২২০০ নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। 

জানা যায়, নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট সময়মতো না পেয়ে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হতে পারছে না রোগীরা। আবার করোনা শনাক্ত না হওয়া পর্যন্ত রোগী স্বাভাবিকভাবে পরিবারের সদস্যসহ অন্যদের সংস্পর্শে থাকায় ছড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিসিআর ল্যাব চালু হলে এ ভোগান্তি কমবে। 

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার