Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১২ জুন, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ জুন, ২০১৭ ২৩:২৬

ছাত্রী ধর্ষণের ভিডিও ধারণ মামলা করায় হুমকি

চাঁপইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

ছাত্রী ধর্ষণের ভিডিও ধারণ মামলা করায় হুমকি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও এর ভিডিও ধারণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মামলা করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছাত্রীর পরিবারকে হুমকি দিচ্ছে অপরাধীরা। ঘটনার ছয়দিন অতিবাহিত হলেও আসামি গ্রেফতার-তো দূরের কথা উল্টো তাদের বাঁচাতে মরিয়া পুলিশ। ভুক্তভোগী ছাত্রীর মা জানান, তার মেয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ে। আট মাস আগে গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর স্টেশন বাজার এলাকার শাহাজাহান আলীর ছেলে সাদ্দাম হোসেন রাজু পারিবারিকভাবে মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। মেয়ের বয়স কম হওয়ায় তারা বিয়েতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর একাধিকবার মেয়েকে বিয়ের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় সাদ্দাম। গত ৫ জুন বিকালে কোচিংয়ে যাওয়ার সময় শিবগঞ্জ-সোনামসজিদ সড়কের ভাঙ্গা ব্রিজ এলাকা থেকে তাকে অপহরণ করে সাদ্দাম ও তার সহযোগীরা। এই ঘটনায় ছাত্রীর মামা শিবগঞ্জ থানায় ৬ জুন মামলা করেন। ওই দিন রাতেই সাদ্দামের বন্ধু নূরের বাড়ি থেকে ছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ। অথচ সেখানে অবস্থানরত সাদ্দামকে গ্রেফতার না করেই ফিরে আসেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মজিবুর রহমান।  ছাত্রী জানায়, জোর করে তাকে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। সে চিৎকার শুরু করলে তাকে অজ্ঞান করে ফেলে। জ্ঞান ফিরলে সাদ্দাম ধর্ষণের ভিডিও দেখিয়ে বলে, বিয়ে না করলে এই ভিডিও সে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেবে। ছাত্রীর অভিযোগ তাকে উদ্ধারের সময় সাদ্দাম ওই বাড়িতেই ছিলো। কিন্তু পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেনি। বাদীর অভিযোগ, ঘটনার পর থেকে পুলিশ দায়িত্বহীন আচরণ করছে। এখন পর্যন্ত ভিডিও উদ্ধারে কোনো তত্পরতা নেই। ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে সাদ্দামের বাবা জানান, ঘটনার দিন মেয়েটি স্বেচ্ছায় তার ছেলের সঙ্গে চলে আসে। কিছক্ষণ পর পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা এসে তাকে নিয়ে যায়। মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা শিবগঞ্জ থানার এসআই মজিবুর রহমান বলেন, তিনি অপহরণ মামলা তদন্ত করছেন। এখন পর্যন্ত ধর্ষণ বা ভিডিও ধারণের বিষয়টি তদন্তে আসেনি। শিবগঞ্জ থানার ওসি পুলিশের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর