শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:৩৮

কুমিল্লার ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগে শিক্ষক সংকট

কুমিল্লা প্রতিনিধি

কুমিল্লার ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগে শিক্ষক সংকট

শিক্ষক সংকটে কাজের গতি কমছে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের। সাতজন শিক্ষকের মধ্যে আছেন তিনজন। প্রফেসর ও সহযোগী প্রফেসরের পদ খালি রয়েছে। ২০১৬ সাল থেকে এই দুরবস্থা চলছে। শিক্ষক সংকটের কারণে ঈদ, পূজায়ও এই তিনজনের ছুটি মিলে না। সূত্র জানায়, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ মর্গে অনেক দুর্ঘটনা ও অপ্রীতিকর ঘটনার মরদেহ আসে। রয়েছে নারীদের ধর্ষণ শনাক্তকরণ। শিক্ষক কম থাকায় অনেক সময় রিপোর্ট দিতে সময় লেগে যায়। যা মামলাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। চলতি বছর অক্টোবর মাস পর্যন্ত কুমিল্লা মর্গে ৬৮০ জনের মরদেহ পরীক্ষা করা হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় পরীক্ষা করতে হয়েছে ২৫০ জনকে। প্রভাষক ডা. শারমিন সুলতানা ও ডা. ওমর ফারুক বলেন, শিক্ষক কম থাকায় বাড়তি দায়িত্ব পালনে তারা হিমশিম খাচ্ছেন। ছাত্র পড়ানোর পর বাকি সময় মরদেহ পরীক্ষার কাজে ব্যয় করেন। বাড়তি দায়িত্ব পালনের সঙ্গে কোর্টে গিয়েও সাক্ষী দিতে হয়। এই নিয়ে কোনো বাড়তি ভাতা বা ঝুঁকি ভাতা নেই। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মহসিন-উজ-জামান চৌধুরী বলেন, ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এখানে দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষক সংকট রয়েছে।

অল্প কয়েকজন শিক্ষক অনেক কষ্টে বিভাগটি চালিয়ে নিচ্ছেন।


আপনার মন্তব্য