Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০১

ভাঙনের চার মাস পরও শুরু হয়নি সংস্কার

রবীন্দ্র কুঠিবাড়ি রক্ষা বাঁধ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

ভাঙনের চার মাস পরও শুরু হয়নি সংস্কার

কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র কুঠিবাড়ি রক্ষাবাঁধ ধসের চার মাস পেরিয়ে গেলেও সংস্কার কাজ শুরু হয়নি। এতে ক্ষোভ ও হতাশা দেখা দিয়েছে নদীপাড়ের মানুষের মধ্যে। পাশাপাশি বাদ পড়া দেড় কিলোমিটারে বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন তারা। জানা যায়, ঐতিহ্যবাহী রবীন্দ্র কুঠিবাড়ি রক্ষায় পদ্মাতীরে ১৭৬ কোটি টাকা ব্যয়ে কুষ্টিয়ার কয়া ইউনিয়ন থেকে শুরু করে শিলাইদহ অংশে তিন হাজার ৭২০ মিটার বাঁধ নির্মাণ কাজ শেষ হয় গত বছর। কাজ শেষ হওয়ার দুই মাসের মধ্যেই কয়ার কালোয়া অংশে শুরু হয় ভাঙন। বিলীন হয়ে যায় ১৫০ মিটার। তখন কাজে অনিয়মের অভিযোগ তুলে স্থানীয়রা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে (পাউবো) দায়ী করে। স্থানীয় বাসিন্দা হাফিজুল জানান, চার মাস আগে বাঁধ ভেঙেছে। আবারও তো বর্ষা মৌসুম প্রায় চলে এলো। নদীতে পানি বেড়ে গেলে কাজ করা সমস্যা হবে। এখনই কাজ শুরু করার দাবি জানান তিনি। পাউবো জানায়, যে ঠিকাদার কাজ করেছেন তিনিই সংস্কার করে দেবেন। ভাঙন বড় হওয়ায় সেখানে নতুন নকশা অনুযায়ী কাজ করতে হবে। এ জন্য কিছূ সময় লাগছে। কয়া ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম স্বপন বলেন, ‘এ ধরনের কাজ ফেলে রাখা ঠিক হয়নি। পাউবো প্রকৌশলী পীযুষ কৃষ্ণ বলেন, ‘ডিজাইন করতে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। ডিজাইন হাতে পেলেই কাজ শুরু হবে। ২০১৫ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শিলাইদহ কুঠিবাড়ির অদূরে পদ্মায়ত ভাঙন শুরু হয়। এতে শঙ্কায় দিন গুনছিল স্থানীয়রা। পরে পাউবো নদীতীর সংরক্ষণ প্রকল্প গ্রহণ করে।

 

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর