শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:১৯

সংস্কার শেষ হওয়ার আগেই ফাটল

লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ হাজীগঞ্জ সড়ক

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ সড়কের ১৯ কিলোমিটার সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রায় ২২ কোটি টাকার এ কাজ শেষ হতে না হতেই রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে দেবে যাওয়াসহ ফাটল দেখা দিয়েছে। লক্ষ্মীপুর সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ সড়কের ১৯ কিলোমিটার সংস্কারের কাজ আগামী মার্চের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশনা রয়েছে। শিডিউল অনুযায়ী প্রায় ৭ কিলোমিটার সড়কে ৬ ইঞ্চি বেস্টেফ ওয়ান (৭০ শতাংশ পাথর ও ৩০ শতাংশ বালু), দুই ইঞ্চি বাইন্ডার, ওভারলে ৪০ মিলি ধরা রয়েছে। সড়কের দুই পাশে ৩ ফুট করে মাটি ভরাটের কথা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ৫০ মিলি বাইন্ডার থাকার কথা থাকলেও বেশিরভাগ স্থানেই ২০-৩০ মিলি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। ৬ ইঞ্চি বেস্টেফ ওয়ান থাকার কথা-তা কোথাও দৃশ্যমান নয়। সড়কের দুই পাশে ৩ ফুটের স্থলে এক ফুট করে মাটি ফেলা হচ্ছে। মাটি ভরাট না করায় কয়েকটি স্থানে এইজিংয়ের ইট সরে গেছে। নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহারে কোথাও ফাটল ধরেছে কোথাও দেবে গেছে রাস্তা। সংস্কারের পর সাড়ে ৯ ইঞ্জি পুরত্ব থাকার কথা; কিন্তু তা সাড়ে ৪ ইঞ্চিতে আটকে যাচ্ছে। ৭ কিলোমিটার সড়কে ৭০ শতাংশ পাথর ও ৩০ শতাংশ বালু দেওয়ার কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। বিটুমিন ও পাথর মেশানোতে তদারকি নেই বললেই চলে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, মিকচারে নতুন পাথর দেওয়ার কথা থাকলেও তা দেওয়া হয়নি। শুধু যেসব স্থানে গর্ত ছিল সেখানে নতুন পাথর দেওয়া হয়েছে। সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন’র জেলা সভাপতি কামাল হোসেন বলেন, ‘সড়ক বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কমিশন বাণিজ্যের কারণে উন্নয়ন কাজে অনিয়ম হচ্ছে। সরকারের সঠিক তদারকির অভাবে দিন দিন কমিশনের পার্সেন্টিজও বাড়ছে। ফলে টেকসই উন্নয়ন হচ্ছে না।’

লক্ষ্মীপুর সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী সুব্রত দত্ত বলেন, ‘কাজের শুরুতে কিছুটা অনিয়মের অভিযোগ থাকলেও তাদের কঠোর তদারকিতে এখন কাজটি ভালোভাবে হচ্ছে। এরপরও পুরো বিল দেওয়ার আগে কাজ যাছাই করা হবে। কোথাও অনিয়ম দেখলে ঠিকাদারকেই মেরামত করতে হবে।’ 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর