শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ মার্চ, ২০২১ ২৩:২৪

সংক্ষিপ্ত

বঙ্গোপসাগর থেকে অস্ত্রসহ পাঁচ জলদস্যু গ্রেফতার

কুয়াকাটা-সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র ও জালাল বাহিনীর প্রধান জালালসহ পাঁচ জলদস্যুকে গ্রেফতার করেছে নৌ পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি মাছধরা ট্রলারসহ দেশীয় অস্ত্র জব্দ করা হয়। জলদস্যুরা হলো- তালেব আলী (২৭), আবদুল কাদের (২৬), রাসেল (২৭), রুহুল আমিন (৩৫) ও জালাল হাওলাদার (৩৫)। গতকাল দুপুরে কুয়াকাটা সৈকত থেকে ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব গভীর সমুদ্র থেকে তাদের ধাওয়া করে গ্রেফতার করা হয়। কুয়াকাটা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই কামরুজ্জামান বলেন, এ সময় দুটি রামদা, একটি বল্লম, পাঁচটি লোহার রড ও পাঁচটি লাঠিসহ একটি ট্রলার জব্দ করা হয়েছে।           

            -কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

বালু ফেলার দ্বন্দ্বে খুন

নরসিংদীর শিবপুরে বালু ফেলা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক খুনের ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার ওসমান মিয়া শিবপুরের কোদালিয়া গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে। পুলিশ জানায়, শনিবার সকালে শিবপুরের আইয়ুবপুর ইউনিয়নের ঘাসিরদিয়ার শাসপুর এলাকায় একটি প্রকল্পের বালু ভরাট কাজের দ্বন্দ্বের জেরে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে খুন হয় জসিম মিয়া (২৪)। তিনি ওই প্রকল্পের ঠিকাদার কাবিল মিয়ার ছেলে। শিবপুর থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, অভিযুক্ত প্রধান আসামি ওসমান মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

            -নরসিংদী প্রতিনিধি

ভুল অপারেশনে রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ, ভাঙচুর

নোয়াখালীর বেসরকারি প্রাইম হাসপাতালে গতকাল ভুল অপারেশনে বিটন রহমান নামে এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রোগীর স্বজনরা হাসপাতালে ভাঙচুর চালায়। এ সময় গণমাধ্যমকর্মীদের ওপরও হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মৃত বিটন কবিরহাটের উত্তমপুর লামছি গ্রামের মফিজ মিয়ার ছেলে। মৃতের স্বজনরা জানায়, শনিবার বিকালে বিটনকে মেরুদন্ডে অপারেশনের জন্য প্রাইম হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়। তাকে প্রায় তিন ঘণ্টা অপারেশন রুমে রাখা হয়। ভোর সাড়ে ৫টায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, রোগী মারা গেছে। অভিযুক্ত ডা. ফরিদুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও মতামত নেওয়া সম্ভব হয়নি।

            -নোয়াখালী প্রতিনিধি

৪০ সেকেন্ডে চুরি করে চম্পট

ওরা দুর্ষর্ধ মোটরসাইকেল চোর চক্র। নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে মোটরসাইকেল চুরি করাই তাদের পেশা। অবশেষে এ চোর চক্রের ৯ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২০টি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্যরা হলেন- মিল্টন সরকার ওরফে মিল্টন কুমার সাহা, মেহেদী হাসান, মাহমুদুল হাসান, আনোয়ারুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম রিপন, মো. ওবায়দুল কাদের, মো. শাখাওয়াত  হোসেন ওরফে রুবেল হোসেন, শাহাদাত হোসেন সাজ্জাদ ও মো. রিয়াজ প্রমুখ। শুক্রবার রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, গ্রেফতারকৃত মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্যরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক এবং সামাজিক অনুষ্ঠানকে টার্গেট করে ঘুরে বেড়ায়। সুযোগ বুঝে মাত্র ৩০ থেকে ৪০ সেকেন্ডের মধ্যে মোটরসাইকেল নিয়ে চম্পট দেয়। নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুর্ধর্ষ চোর চক্রের ৯ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

            -নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

এই বিভাগের আরও খবর