শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২২ ০০:০০ টা
ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে

খুলে দেওয়া হলো ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের তিন ফ্লাইওভার

গাজীপুর প্রতিনিধি

খুলে দেওয়া হলো ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের তিন ফ্লাইওভার

এবারের ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক করতে সাসেক প্রকল্পের ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের তিনটি উড়াল সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দিয়েছে সড়ক বিভাগ। ঈদের আগে যানজটপ্রবণ এলাকার এসব উড়াল সেতু খুলে দেওয়ায় স্বস্তি ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী। গতকাল দুপুর ২টার দিকে অনাড়ম্বরভাবে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নাওজোড়, কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর বাজারে ও কালিয়াকৈরের পাশের গোড়াই এলাকার তিনটি উড়াল সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয় সড়ক বিভাগ। গাজীপুর সড়ক বিভাগের দাবি ফ্লাইওভার খুলে দেওয়ায় অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ঈদের ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত অনেকটা স্বস্তিদায়ক হবে। সাসেক প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, সাউথ এশিয়ান সাব-রিজিওনাল ইকনোমিক কো-অপারেশন (সাসেক) প্রকল্পের আওতায় নাওজোড়, সফিপুর ও গোড়াই ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হয়েছে। ৮১৫ মিটার দৈর্ঘ্যরে নাওজোড় ফ্লাইওভার নির্মাণে ৫৮ কোটি টাকা আর ১ হাজার ২৬৯ মিটার দৈর্ঘ্যরে সফিপুর ফ্লাইওভার নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১০৫ কোটি টাকা। এদিকে কালিয়াকৈর প্রতিনিধি জানান, গাজীপুরে ছোট বড় প্রায় ৫ হাজার শিল্পকারখানা রয়েছে। এসব কারখানার বেশির ভাগ শ্রমিক উত্তরবঙ্গের। তারা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় হয়ে প্রবেশ করে উত্তরবঙ্গে। উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার খ্যাত চন্দ্রা ত্রিমোড় হয়ে ঈদে ২৩ জেলার মানুষ যাতায়াত করে। যার কারণে ভোগান্তি সবচেয়ে বেশি পড়ে এখানেই। তাই বেশ কিছুদিন ধরে এলাকাবাসী উড়ালসড়কটি খুলে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছিলেন। গাজীপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার মোহাম্মদ শরীফুল আলম জানান, ঈদের আগে ফ্লাইওভার খুলে দেওয়ায় ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক হবে। মানুষের দুর্ভোগ অনেকটা কমে আসবে। সাসেক-১ প্রকল্পের অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক কে এম নূরে আলম জানান, ঈদে ঘরমুখো মানুষের চাপ সামাল দিতে যানজটপ্রবণ এলাকায় নির্মিত উড়াল সেতু তিনটি যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দিল সড়ক ও সেতু বিভাগ। নতুন তিনটি ফ্লাইওভার খুলে দেওয়ায় এবার ঈদে যানজটের আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা। সূত্র আরও জানায়, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক দিয়ে উত্তরবঙ্গের ২৩ জেলার কয়েক লাখ মানুষ চলাচল করে। প্রতি ঈদে এসব সড়কপথে ভোগান্তি পোহাতে হয় যাত্রী ও চালকদের। যানজটে পড়ে থাকতে হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

সর্বশেষ খবর