শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:২৮

ভাণ্ডারিয়ায় মাদ্রাসার সুপারসহ আটক ৮

পিরোজপুর প্রতিনিধি:

ভাণ্ডারিয়ায় মাদ্রাসার সুপারসহ আটক ৮

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় জেডিসি পরীক্ষায় বডি চেঞ্জ করে পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে কেন্দ্র সচিব ও মাদ্রাসার সুপারসহ ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হল- হাফিজা আক্তার, কারিমা আক্তার, মুনিয়া হাওলাদার, বকুল আক্তার, হরিণপালা নেছারিয়া ছিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র পরীক্ষার্থী বায়জিদ হোসেন ও ভুয়া পরীক্ষার্থী মো. মমিনুল ইসলাম। এছাড়া ভুয়া পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার সুযোগ করে দেয়ার অভিযোগে পুলিশ পরীক্ষা কেন্দ্র সচিব ও উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা মো. আমির হোসেন ও  উপজেলার হরিণপালা নেছারিয়া সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মো. সিদ্দিকুর রহমানকে আটক করেছে। 

ভান্ডারিয়া থানার ওসি তদন্ত ফরিদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম জানান, উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম পশারীবুনিয়ায় বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত বিপিএম দাখিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে শনিবার জুনিয়র দাখিল পরীক্ষা (জেডিসি) ইংরেজি বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পরীক্ষা চলাকালীন ওই পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে ৫ ভুয়া পরীক্ষার্থীকে সনাক্ত করি। এ সময় অন্যের পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে তাদেরকে আটক করা হয়
এছাড়া ভুয়া পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার সুযোগ করে দেওয়ার অভিযোগে পরীক্ষা কেন্দ্র সচিব ও উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা মো. আমির হোসেন ও  উপজেলার হরিণপালা নেছারিয়া সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসা সুপার মো. সিদ্দিকুর রহমানকে আটক করি। 

ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজমুল আলম জানান, উপজেলার পশ্চিম গোলবুনিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসার নিয়মিত পরীক্ষার্থী মুনিয়া আক্তার রোল ৩০৬৫৪৬ এর পরিবর্তে হাফিজা আক্তার, রুমী আক্তার রোল-৩০৬৫৫০ এর পরিবর্তে কারিমা আক্তার, নূপুর আক্তার রোল-৩০৬৫৪৯ এর পরিবর্তে ফাযিল পরীক্ষার্থী মুনিয়া হাওলাদার, সোনিয়া আক্তার রোল-৩০৬৫৪১ এর পরিবর্তে বকুল আক্তার হরিণপালা নেছারিয়া ছিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসা পরীক্ষার্থী বায়জিদ হোসেন রোল-৩০৬৩৮৬ এর পরিবর্তে  মো. মমিনুল ইসলাম পরীক্ষায় অংশ নেয়। এরপর তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিল ও সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসাগুলোর এমপিও বাতিলের জন্য বাংলাদেশ মাদ্রাসা অধিদপ্তর, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে চিঠি পাঠানো হবে। 

ওসি তদন্ত ফরিদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. এমাদুল হক বাদী হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। 
 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য