শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ মার্চ, ২০২১ ২১:০২
প্রিন্ট করুন printer

৩০ হাজার টাকার জন্য বাড়ির মালিককে হত্যা

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

৩০ হাজার টাকার জন্য বাড়ির মালিককে হত্যা
পুলিশের হাতে গ্রেফতার ঝর্না আক্তার।

জয়পুরহাট পৌর শহরের রুপনগর এলাকায় বাড়ির মালিক শেফালি বেওয়াকে (৬৫) হত্যার অভিযোগে ভাড়াটিয়া ঝর্ণা আক্তার নিলা (২১) নামে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রুপনগর এলাকা  থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার ঝর্না আক্তার কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পরমতলা গ্রামের মুনসুর খাঁনের স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, জয়পুরহাট শহরের রুপনগর এলাকার মৃত সোলায়মান আলীর স্ত্রী শেফালি বেওয়া ২ মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর নিজ বাড়িতে একাই বসবাস করতেন। ওই বৃদ্ধার বাড়িতে বেশ কয়েক বছর থেকে ঝর্না একাই ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছেন। 

সম্প্রতি ঝর্না জর্ডানে যাওয়ার জন্য বাড়ির মালিক শেফালির নিকট থেকে টাকা চান। ১৩ মার্চ শেফালি একটি গরু বিক্রয়ের জন্য বায়না হিসেবে ৩০ হাজার টাকা নেওয়ার পর ওইদিনই রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান। স্ট্রোক করে তিনি মারা গেছেন বলে পরদিন সকালে ঝর্না বিষয়টি বৃদ্ধার পরিবারকে জানান।

স্বাভাবিক মৃত্যু জেনে পারিবারিকভাবে শেফালির মৃতদেহ ওইদিন দাফন করা হয়। পরে ঝর্নার গতিবিধি ও আচরণ দেখে সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন তার ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে একপর্যায়ে নিলা ১৫ মার্চ রাতে স্বীকার করে যে, বিদেশ যাওয়ার টাকার জন্য ওই ৩০ হাজার টাকা নিতে গেলে বৃদ্ধা শেফালি তাকে বাধা দেন।

এতে বাধ্য হয়ে নিলা মসলা বাঁটার নোড়া দিয়ে মাথা ও মুখে আঘাত করে বৃদ্ধা শেফালিকে হত্যা করেন। এর পরদিন ১৬ মার্চ সকালে স্থানীয়রা ঝর্নাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে ৩০ হাজার টাকাসহ ঝর্না আক্তার নিলাকে গ্রেফতার করে।

জয়পুরহাট থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, এ ব্যাপারে শেফালির ভাই জালাল শেখ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। আইনগত ব্যবস্থাসহ আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর