২০ জুন, ২০২২ ১৪:৩১

সাপের কামড়ে মৃত্যু, চার হাসপাতাল ঘুরেও ভ্যাকসিন না পাওয়ার অভিযোগ

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

সাপের কামড়ে মৃত্যু, চার হাসপাতাল ঘুরেও ভ্যাকসিন না পাওয়ার অভিযোগ

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে চার হাসপাতাল ঘুরেও ভ্যাকসিন না পেয়ে সাপের কামড়ে আহত ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সূত্র জানায়, রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে করিমগঞ্জের দেহুন্দা এলাকার রিকশাচালক আলাউদ্দিন (৩৫) বাড়ির পাশে নরসুন্দা নদীতে গোসল করতে গেলে সাপে কামড় দেয়। রবিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

আলাউদ্দিনের স্ত্রী আছমা আক্তার জানান, বাড়ির পাশে নরসুন্দা নদীতে গোসল করতে গেলে ডান হাতের মাঝের আঙ্গুলে সাপে কামড় দেয়। বেলা ১০টা ৪০ মিনিটে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় তাকে করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে প্রায় ১ ঘণ্টা অপেক্ষার পরও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাড়া পাননি তারা। পরে এক নার্স এসে জানান, তাদের কাছে ভ্যাকসিন নেই।

এ অবস্থায় আলাউদ্দিনকে নেওয়া হয় কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে ২ ঘণ্টা অপেক্ষার পর জানানো হয়, ভ্যাকসিন নেই। তারপর তাকে নেওয়া হয় শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেও প্রায় ঘণ্টাখানেক অপেক্ষার পর তাকে একটি স্যালাইন পুশ করা হয়। সেখানে রক্ত পরীক্ষা শেষে তারাও ভ্যাকসিন না থাকার কথা জানান। এরপর স্বজনরা অ্যাম্বুলেন্সে করে সন্ধ্যার দিকে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে আইসিইউ ফাঁকা না থাকায় ভ্যাকসিন পুশ করা হয়নি বলে জানান স্বজনরা। এ অবস্থায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন আলাউদ্দিন।

করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রিয়াদ শাহেদ রনি জানান, তাদের হাসপাতালে ভ্যাকসিন রয়েছে, কিন্তু সেগুলো মেয়াদোত্তীর্ণ। ফলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে কিশোরগঞ্জে রেফার করা হয়।

শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, এখানে ভ্যাকসিন রয়েছে। তবে রবিবার সাপে কাটা রোগীটি আসার সময় যিনি দায়িত্বে ছিলেন, চিকিৎসক হিসেবে তিনি নতুন। আমাদের কারও সাথে বিষয়টি নিয়ে পরামর্শ করেননি তিনি।

সাপে কাটার ইনজেকশনও একপ্রকার বিষ উল্লেখ করে পরিচালক জানান, এটি পুশ করলে অনেক সময় ‘এনেসাইক্লেটিক শক’ হয়ে রোগী মারা যায়। সে ভয়েই রোগীটিকে ময়মনসিংহে পাঠানো হয়। তবে এখন থেকে নোটিশ ইস্যু করা হয়েছে, সাপে কাটা রোগী এলে যেন রেফার্ড করা না হয়। এখানেই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

এদিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা.সাইফুল ইসলাম জানান, জেলার ১৩টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেই পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন রয়েছে। ভ্যাকসিন না দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি জানান, অনেক সময় ভ্যাকসিন দেওয়ার পর আইসিইউ প্রয়োজন হয়। সেটা উপজেলা পর্যায়ে নেই। সে কারণে হয়তো চিকিৎসক রিক্স  (ঝুঁকি) নিতে চাননি। তবে বিষয়টা নিয়ে আমরা আলোচনা করছি, এখন থেকে রোগী এলে রিক্স নিয়েই ভ্যাকসিন দিতে হবে।

বিডিপ্রতিদিন/কবিরুল 

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর