শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৪ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৪ ০০:০০

ইতিহাস

ভারতের সঙ্গে আরবের সম্পর্ক

ভারতের সঙ্গে আরবের সম্পর্ক

সিন্ধু বিজয়ের আগে ভারতের সঙ্গে আরবদের কি সম্পর্ক ছিল তা আলোচনা করা দরকার। প্রাথমিক যুগের আরব লেখকরা- ইবনে খুরদাদবিহ, মাসুদি, ইবনে হাওকল ও আল-বেরুনি ভারতীয় উপমহাদেশকে নির্দেশ করার জন্য হিন্দ-সিন্দ শব্দ ব্যবহার করতেন। তারা বিশ্বাস করতেন, সিন্ধু নদ ও এর শাখা মেহরানের তীরবর্তী যা সিন্ধু নামে পরিচিত তা হিন্দ বলতে যে মূল ভূখণ্ড রয়েছে তার ভৌগোলিক সীমার বহির্ভূত। কিন্তু গজনি ও ঘুরিদের অভিযানের পর এ যুক্ত নামের (হিন্দ-সিন্দ) অপব্যবহার হয়। তখন সিন্ধুকে একটি প্রদেশ বোঝাত এবং হিন্দ ভারতের জন্য একটি জনপ্রিয় নামে পরিচিত হয়। আরবিতে প্রিয়ার প্রতিশব্দ হিসেবে 'হিন্দ' শব্দের প্রচলন রয়েছে। এ হিন্দ শব্দ থেকে ভারতবর্ষ এবং আরবের মধ্যে অতীতের মধুর সম্পর্ক ও মৈত্রীর পরিচয় পাওয়া যায়। মহানবী হজরত মুহম্মদ (সা.)-এর জন্মের বহু শতাব্দী আগেও ভারতের সঙ্গে আরব বণিকদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল এবং তারা ভারতের উপকূলে ঔপনিবেশিক বসতি স্থাপন করেছিল। আরব মরুভূমির দেশ বলে এর অধিবাসীরা স্মরণাতীতকাল থেকে জীবিকা অর্জনের জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ব্যবসায়-বাণিজ্য করত। পূর্ব-আফ্রিকার উপকূলে তারা অনেক উপনিবেশ স্থাপন করেছিল। ইহুদি লেখক জব বলেছেন, আরবরা পশ্চিম-ভারত থেকে ওষুধ, মসলা ও সুগন্ধি-নির্যাস আমদানি করে তা মিসর ও ফিলিস্তিনে রপ্তানি করত। প্রাচীন আরবের জাহাজ লোহিত সাগর, পারস্য উপসাগর ও ভারত মহাসাগরে যাতায়াত করত। আরব বণিকরা মূল্যবান ভারতীয় পণ্যদ্রব্য ইউরোপীয় দেশে ও চীনে নিয়ে যেত। ব্যবসায়-বাণিজ্যের সূত্র ধরেই প্রথমে আরবরা ভারতীয় উপমহাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে।

 

 

 


আপনার মন্তব্য

Bangladesh Pratidin

Bangladesh Pratidin Works on any devices

সম্পাদক : নঈম নিজাম,

নির্বাহী সম্পাদক : পীর হাবিবুর রহমান । ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের পক্ষে ময়নাল হোসেন চৌধুরী কর্তৃক প্লট নং-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, বারিধারা, ঢাকা থেকে প্রকাশিত এবং প্লট নং-সি/৫২, ব্লক-কে, বসুন্ধরা, খিলক্ষেত, বাড্ডা, ঢাকা-১২২৯ থেকে মুদ্রিত। ফোন : পিএবিএক্স-০৯৬১২১২০০০০, ৮৪৩২৩৬১-৩, ফ্যাক্স : বার্তা-৮৪৩২৩৬৪, ফ্যাক্স : বিজ্ঞাপন-৮৪৩২৩৬৫। ই-মেইল : [email protected] , [email protected]

Copyright © 2015-2019 bd-pratidin.com