শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪১

ব্যবসায়ে বিসংবাদ

ভাইরাসজনিত মন্দদশা রুখতে হবে

আজকের দুনিয়ায় অসুখ-বিসুখকেও কোনো দেশের নিছক একক সমস্যা বলে ভাবার যে সুযোগ নেই করোনাভাইরাসের প্রভাব তা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। এ ভাইরাসে প্রধানত চীন বিপন্ন অবস্থার শিকার হলেও তার প্রভাব পড়েছে বিশ্বজুড়ে। বিধ্বংসী এ ভাইরাস বিশ্বের সব দেশের মানুষের অস্তিত্বের জন্য হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছে। চীন করোনাভাইরাসবিরোধী যুদ্ধে তার দেশের একটি এলাকাকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে, তার পরও মিলছে না স্বস্তি। বাংলাদেশসহ যেসব দেশে এ ঘাতক ভাইরাস এখনো থাবা বিস্তার করতে পারেনি সেসব দেশও অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে চীনের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানিতে ধস নামার কারণে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, চীনে করোনাভাইরাসের প্রভাব আরও দীর্ঘায়িত হলে বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানির চলমান সাপ্লাই চেইনেও বড় ধরনের সংকট সৃষ্টি হতে পারে। দেশের পোশাকশিল্পের ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ উপকরণ ও মেশিনারিজের জন্য বাংলাদেশ চীনের ওপর নির্ভরশীল। পদ্মা সেতুর মতো বড় অবকাঠামো নির্মাণের সঙ্গে চীনের সংশ্লিষ্টতা থাকায় এসব প্রকল্প কতটা এগিয়ে নেওয়া যাবে তা নিয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে যেসব প্রকল্পে চীনারা জড়িত সেগুলো থমকে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। চীনের রাজধানী বেইজিংয়ের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে সম্প্র্রতি এ বিষয়ে সতর্ক করে একটি জরুরি মেইল পাঠানো হয়েছে সরকারের কাছে। বেইজিংয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলের ওই মেইলে উল্লেখ করা হয়, চীনের উল্লেখযোগ্যসংখ্যক কর্মী ও বিশেষজ্ঞ পদ্মা সেতুসহ বিভিন্ন প্রকল্পে কাজ করছেন। করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ায় দেশের বৃহত্তম অবকাঠামোগুলোর বাস্তবায়ন সময়মতো শেষ করা নিয়ে চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি হতে পারে। চীনের নাগরিকদের চলাচল এরই মধ্যে সীমিত করা হয়েছে বিশ্বপরিসরে। বাংলাদেশের বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার দেশটির বাণিজ্য খাতে করোনাভাইরাস যে উদ্বেগ তৈরি করেছে, তা তুলে ধরে মেইলে বলা হয়, ভাইরাসের ভয়াবহতা চীনের সামগ্রিক সাপ্লাই চেইনে আঘাত করেছে, যা বাংলাদেশের বহির্বাণিজ্যে নেতিবাচক প্রভাবের পাশাপাশি দেশের সাপ্লাই চেইনেও বড় ধরনের সংকট সৃষ্টি হতে পারে। কারণ, বাংলাদেশের সামগ্রিক আমদানির ২৫ থেকে ২৮ শতাংশ আসে চীন থেকে। তৈরি পোশাকশিল্পও চীনা পণ্যের ওপর অনেকাংশে নির্ভরশীল। এ সংকট মোকাবিলায় সরকারকে সুপরিকল্পিতভাবে এগোতে হবে। নিতে হবে সব ক্ষেত্রে সঠিক ও সুচিন্তিত পদক্ষেপ।


আপনার মন্তব্য