শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ মার্চ, ২০২১ ২২:৪৫

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ

ব্যক্তিগত সুরক্ষায় নজর দিতে হবে

Google News

আগে থেকেই আশঙ্কা করা হচ্ছিল করোনা সংক্রমণের নতুন ঢেউ আসবে। অনেকে একে দ্বিতীয় ঢেউ বলছে। শীত শেষে শুষ্ক মৌসুমে বাতাসে ধূলিকণার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় বায়ুদূষণের কারণে এমনিতেই জ্বর, কাশি, নিউমোনিয়া হতে পারে। শিশুসহ বিভিন্ন বয়সের লোকজন বায়ুদূষণের কারণে অসুস্থও হচ্ছে। করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। যে কোনো সময় তা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। এখন সর্বাত্মক প্রস্তুতির দরকার। সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে সরাসরি নির্দেশনা আসছে। মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মানতে জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অত্যন্ত ছোঁয়াচে এ ভাইরাস আমাদের জাতীয় স্বাস্থ্যের জন্য এখনো আগের মতোই ঝুঁকিপূর্ণ রয়ে গেছে। এমনকি বিশেষজ্ঞের কেউ কেউ আশঙ্কা করছেন ভাইরাসটি ইতিমধ্যে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে। সেজন্য পরীক্ষার প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন। দৈনিক নমুনা সংগ্রহের সংখ্যাও এখন অনেক কম। এটা স্বাভাবিক যে কম নমুনা সংগ্রহ করা হলে পরীক্ষার সংখ্যাও কম হবে। তাই নমুনা সংগ্রহের ওপর এখন বেশি জোর দিতে হবে। নজর দিতে হবে নাগরিকদের ব্যক্তিগত সুরক্ষার দিকে। মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। প্রশাসন ও নাগরিকদের সমন্বিত সচেতনতা ছাড়া করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। স্বাস্থ্যবিধি মানার পাশাপাশি টিকা নিতে হবে। এজন্য দেশব্যাপী সচেতনতা বাড়াতে হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, চিকিৎসকসহ সব পেশার মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। দেশে এক দিনে ২২ জন মানুষ মারা গেছেন, এটা গুরুতর বিষয়। বাস, ট্রেন, গণপরিবহনে স্ক্রিনিং চালাতে হবে। চারদিক থেকে একযোগে কর্মসূচি নিলে করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব। বাইরে বের হলে মাস্ক পরতে হবে, হাত ধুতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। রবিবার পর্যন্ত দেশে টিকা নিয়েছেন ৪৮ লাখ ৪০ হাজার ৯৬৯ জন। এ সংখ্যা আরও বাড়াতে হবে। টিকা নেওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।