১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৬:৪৮

প্রাণ ফিরে পেল লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ

ফারুক আল শারাহ, লাকসাম

প্রাণ ফিরে পেল লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ

শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাস

শিক্ষার্থীদের বলা হয়ে থাকে ক্যাম্পাসের প্রাণ। শিক্ষার্থীবিহীন ক্যাম্পাস প্রাণহীন পাথরের মূর্তির ন্যায়। নিস্প্রাণ হয়ে যাওয়া প্রকৃতির পাঠশালা হিসেবে খ্যাত কুমিল্লার লাকসাম নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ ক্লাস-পরিক্ষা ও আড্ডায় ফের প্রাণ ফিরছে সবুজ ক্যাম্পাসে।

মহামারি করোনার কারণে গত প্রায় ১৮ মাস থেকে কলেজ ক্যাম্পাসটি বন্ধ। শিক্ষার্থীবিহীন ফাঁকা ক্যাম্পাসে যেন কোথাও কেউ ছিল না। জীর্ণ-শীর্ণভাবে পড়ে ছিল ক্যাম্পাসের চত্বর, ক্লাসরুম, লাইব্রেরি, নওয়াব বাড়ি, খেলার মাঠগুলো। শিক্ষার্থীদের পদচারণায় যে রাস্তাগুলো মুখরিত থাকতো, সেই রাস্তাগুলো যেন মৃত প্রায় ছিল।

শিক্ষার্থী শূন্য ক্লাসরুমগুলো যেন গ্রীষ্মের খরতাপের মতো খাঁ খাঁ করছে। ক্লাসের প্রতিটি কক্ষ যেন শিক্ষার্থীদের অপেক্ষায় প্রহর গুণছে। 

এরই মধ্যে টানা দীর্ঘ ১৮ মাস পর লাকসাম ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজের ক্যাম্পাসে ফিরতে শুরু করেছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের পদচারণায় গল্পে, গানে, চায়ের আড্ডায় মুখরিত হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসের প্রতিটি আঙ্গিনা, শহিদ মিনার, গাছতলায়, ডাকাতিয়া নদীরপাড়, ফয়জুন্নেছা নবাববাড়ি, সবখানেই ফিরে পেয়েছে প্রাণের ছোঁয়া। আর এতেই শিক্ষার্থীদের চোখেমুখে আনন্দের ছাপ ফুটে উঠেছে।

শিক্ষার্থীদের আগমনে কলেজের গাছতলায়  আবার নতুন করে শুরু হয়েছে গান, কবিতা আর আড্ডার আসর, তাদের সাথে গলা মিলিয়ে যেন গান গায় পাখিরা। 

স্নাতকের ছাত্র কাউসার আলম বলেন, নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজ আমার কাছে একটি ভালোবাসার নাম। করোনার জন্য বাড়িতে ক্যাম্পাস কখন খুলবে সেই অপেক্ষায় ছিলাম। ক্যাম্পাসে এসে দীর্ঘদিনের ক্লান্তি হতাশা সব কেটে গেছে।

শিক্ষার্থীরা অপেক্ষায় আছেন আবারও সোনালী আলোতে আলোকিত করবে প্রাণবন্ত ক্যাম্পাস। যেদিনের অপেক্ষায় প্রহর গুণছে হাজার হাজার ক্যাম্পাসপ্রেমী তারুণ্য।

 

বিডি প্রতিদিন/ অন্তরা কবির 

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর