Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুন, ২০১৮ ২৩:২২

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি আজ হারলেই বাদ!

ক্রীড়া ডেস্ক

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি আজ হারলেই বাদ!

মেক্সিকান ঢেউয়ে ভেসে গেছে জার্মানি। মেক্সিকান ধাক্কায় বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার রাস্তায় এসে দাঁড়িয়েছে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। ফুটবল মহাযজ্ঞে টিকে থাকতে  আজ সুইডেনের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। জিতলেই সম্ভাবনা উজ্জ্বল দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার। সুইডেনের পাশাপাশি আজ যদি মেক্সিকো হারায় দক্ষিণ কোরিয়াকে তাহলে আজই বিদায় ঘণ্টা বেজে যাবে। সুইডেন ও মেক্সিকো আজই শেষ ষোলোয় জায়গা করে নেবে।

মেক্সিকোর বিপক্ষে হারবে, এমনটা ভাবতেই পারেননি জার্মানির সমর্থকরা। যে দলটির বিশ্বকাপ ইতিহাস অন্য যে কোনো দেশের চেয়ে সমৃদ্ধ, সেই দল প্রথম রাউন্ড থেকে ছিটকে পড়বে, ভাবাই যাচ্ছে না। ১৯৩৮ সালে সুইজারল্যান্ডের কাছে টাইব্রেকারে হেরে প্রথম রাউন্ডের ব্যারিয়ার টপকাতে পারেনি জার্মানি। ১৯৭৮ সালে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নেয়। ১৯৫৪, ১৯৭৪, ১৯৯০ ও ২০১৪ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা কখনই কোয়ার্টার ফাইনালের আগে বিদায় নেয়নি। লোর সেই জার্মানি এবার প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায়ের শঙ্কায়। মেক্সিকোর বিপক্ষে হারের পর জার্মান মিডিয়া ছিঁড়েখুঁড়ে ফেলছে জোয়াকিম লোকে। একাদশে থমাস মুলার, মেসুত ওজিলকে খেলানোর সমালোচনা করছে। গত বিশ্বকাপের গোল্ডেন বল জয়ী থমাস মুলারকে ছায়া খেলতে দেখা গেছে। জাতীয় সংগীতের সময় নিষ্প্র্রাণ ছিলেন ওজিল। এ নিয়ে সমালোচকরা বলছেন, দুজনকে সুইডেনের বিপক্ষে বসিয়ে দিতে। সুইডেনের বিপক্ষে জার্মানির সাফল্য কিন্তু খারাপ নয়। দুই দলের ২২ বার মুখোমুখিতে জার্মানির জয় ১০টি এবং সুইডেনের ৮টি। বাকি ৪ ম্যাচে হারেনি কেউ। জার্মানির ৪৯ গোলের বিপরীতে সুইডেনের গোল ৪১টি। সমানে সমান থাকা দল দুটির লড়াই এবার সোচিতে বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায়। বিশ্বকাপে জার্মানির সাফল্য কিন্তু ঈর্ষণীয়। ১৯৩০ সালে প্রথম বিশ্বকাপে খেলেনি দেশটি। এরপর ১৯৩৪ থেকে নিয়মিত অংশ নিচ্ছে। ১৯৭৮ সালে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ডের ব্যারিয়ার টপকাতে পারেনি। চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ১৯৫৪, ১৯৭৪, ১৯৯০ ও ২০১৪ সালে। রানার্স আপ চারবার ১৯৬৬, ১৯৮২, ১৯৮৬ ও ২০০২ সালে। তৃতীয় হয়েছে তিনবার ১৯৭০, ২০০৬ ও ২০১০ সালে। চতুর্থ হয়েছে ১৯৫৮ সালে। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে পড়েছে ১৯৬২, ১৯৯৪ ও ১৯৯৮ সালে।  এমন ইতিহাস সমৃদ্ধ দল এখন ছিটকে পড়ার শঙ্কায়। গুঞ্জন অন্তর্দ্বন্দ্বের। তারপরও সবাই চাইছে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা টিকে থাকুক বিশ্বকাপে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর