শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৯:৩৫
আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৪:২২

যুক্তরাষ্ট্রের এয়ারলাইন্সে ছাঁটাই হচ্ছেন আরও ৫১ হাজার ৩০০ কর্মচারী

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি

যুক্তরাষ্ট্রের এয়ারলাইন্সে ছাঁটাই হচ্ছেন আরও ৫১ হাজার ৩০০ কর্মচারী
ফাইল ছবি

করোনায় বিধ্বস্ত যুক্তরাষ্ট্রের এয়ারলাইন্সগুলোর আরও ৫১ হাজার ৩০০ কর্মচারী ছাঁটাই করা হচ্ছে। সামনের বৃহস্পতিবার থেকে তারা অনির্দিষ্টকালের ছুটিতে যাবেন। এর মধ্যে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের ১৬,৩০০ এবং অন্যান্য এয়ারলাইন্সের রয়েছেন ৩৫ হাজার কর্মচারী। ২৬ সেপ্টেম্বর সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

৯/১১ এর সন্ত্রাসী হামলার পর এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। সেটি কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই করোনায় এয়ারলাইন্স সেক্টর লন্ডভন্ড হয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যেই এ সেক্টরের এক লাখ কর্মচারীকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মার্চে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরুর সময় থেকেই এয়ারলাইন্সে যাত্রী কমেছে ৮০%। বেশ কটি এয়ারলাইন্স তার ফ্লাইট কমিয়েছে। কেউ কেউ দেউলিয়া ঘোষণা করে নিজেদের রক্ষার চেষ্টা করেছে। করুণ এ দশা থেকে উদ্ধারকল্পে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে ডেমক্র্যাটরা গত ১৫ মে একটি বিল পাস করেন।কিন্তু রিপাবলিকানরা সিনেটে তা পান করেননি। ফলে এয়ারলাইন্সগুলোকে ঘুরে দাঁড়াতে সুদূর প্রসারি পরিকল্পনাটি মুখ থুবড়ে পড়ে রয়েছে। 

‘দ্য অ্যাসোসিয়েশন অব ফ্লাইট এটেনড্যান্টস’র কর্মকর্তা ব্যালেস্টেরস বলেন, ‘আমার মনে হয় আমাদের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের সহানুভূতির আড়ালে পড়ে গেছি। সেজন্য তারা বিরাটসংখ্যক মানুষের কল্যাণে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণে সীমাহীন উদাসীনতা প্রদর্শন করে চলেছেন। এয়ারলাইন্স কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে গঠিত শ্রমিক ইউনিয়নের শীর্ষ কর্মকর্তারা গত সপ্তাহে ক্যাপিটল হিল ও হোয়াইট হাউজে দেন-দরবার করেন। কিন্তু আশাব্যঞ্জক সাড়া পাননি। তারা সকলেই হতাশ হয়েছেন। এ অবস্থায় ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের চিফ এক্সিকিউটিভ স্কট কিরবি বলেন, মার্কিন অর্থনীতি ও এয়ারলাইন্স সেক্টরকে রক্ষায় গত মার্চে কংগ্রেস খুবই সদয় ছিল। তারা করোনা রিলিফ বিলে মোটা অর্থ বরাদ্দ দেয়। আমরাও ৫ বিলিয়ন ডলার পেয়েছি। তা দিয়ে কিছুটা স্বস্তিতে ছিলাম। কিন্তু এখন আর অফিস চালানোর সামর্থ্য নেই। উল্লেখ্য, এই এয়ারলাইন্সের কর্মচারী সংখ্যা ৭৯ হাজার। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ
 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর