শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০

মমতার মোদিবিরোধী লড়াই এবার দিল্লিতে

মমতার মোদিবিরোধী লড়াই এবার দিল্লিতে
Google News

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে মোদি-শাহ জুটিকে একাই হারিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। ভারতে তিনিই এখন বিরোধী শিবিরের প্রধান মুখ। আগামী লোকসভা ভোট ‘মিশন ২০২৪’-এর বিরোধী পরিসর আবর্তিত হচ্ছে তাঁকে ঘিরে। সেই মমতা, একুশের ২১ জুলাইতে ডাক দিয়েছেন মোদিবিরোধী জোট গঠনের। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এবার তাঁর রাজধানী সফর ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে। জানা গেছে, আগামী বুধবার দিল্লিতে সেই জোট গঠনের প্রক্রিয়ার সূচনা হবে তৃণমূল নেত্রীর উপস্থিতিতেই।

বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর কংগ্রেস, অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি, শারদ পাওয়ারের এনসিপি, উদ্ধব থ্যাকারের শিবসেনা, স্ট্যালিনের ডিএমকে, ওমর আবদুল্লার ন্যাশনাল কনফারেন্স, অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি, তেজস্বী যাদবের রাষ্ট্রীয় জনতা দল, হেমন্ত সোরেনের ঝাড়খন্ড মুক্তি মোর্চা, চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টিও নিশ্চিতভাবে রয়েছে জোটে। শুধু ২টি দলকে নিয়ে সংশয়। দেবগৌড়ার জনতা দল (সেক্যুলার) এবং কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস)। মুখে বিজেপি বিরোধী হলেও, একাধিকবার মোদির সহায়ক হয়ে দেখা দিয়েছে দুই দলই। বিশেষ করে টিআরএস। যদিও মমতার ভাষণ শুনতে গত ২১ জুলাই কনস্টিটিউশন ক্লাবে উপস্থিত ছিলেন দলের নেতা কেশব রাও। দেবগৌড়ার দল আবার ইদানীং বিজেপির প্রতি নরম। মায়াবতী এবং নবীন পট্টনায়ককে পাওয়া যাবে না ধরেই নেওয়া হচ্ছে। আগামীকাল মমতা ব্যানার্জির দিল্লি যাওয়ার আগে রাজনৈতিক মহলে এই সমীকরণ নিয়ে চলছে জোর আলোচনা। রাজ্যের নির্বাচনে তৃতীয়বার জয়ী হওয়ার পর, এই প্রথম দিল্লি যাচ্ছেন তৃণমূল প্রধান। তাঁর দিল্লি সফরে সরকারিভাবে একঝাঁক এজেন্ডা থাকলেও, পাখির চোখ যে বিজেপি-বিরোধী মহাজোটকে চূড়ান্ত রূপ দেওয়া। জানা যাচ্ছে, সংসদে সেন্ট্রাল হলে বিভিন্ন দলের এমপিদের সঙ্গে দেখা করার পর, সংসদের বাইরে একটি মোদিবিরোধী সর্বদলীয় বৈঠকের আহ্বান করতে পারেন তিনি। সেটি হতে পারে কনস্টিটিউশন ক্লাবে। দিল্লি যাওয়ার আগে আজ দুপুরে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজধানীর ক্ষমতার অলিন্দে জোরদার জল্পনা মমতা ব্যানার্জির এই দিল্লি সফরের পরই চূড়ান্ত কাঠামো নিয়ে আত্মপ্রকাশ করবে মহাজোট। আপাতত ২টি বিষয় নিয়ে কৌতূহল চরমে।