শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ মে, ২০২১ ২৩:০৩

সুষম উন্নয়নে অঞ্চলভিত্তিক বিশেষ বরাদ্দ প্রয়োজন

-ফারুক মাহমুদ চৌধুরী

সুষম উন্নয়নে অঞ্চলভিত্তিক বিশেষ বরাদ্দ প্রয়োজন
Google News

জাতীয় উন্নয়নের পূর্বশর্ত হচ্ছে আঞ্চলিক উন্নয়ন। আর সুষম উন্নয়নের জন্য অঞ্চলভিত্তিক সম্ভাবনাময় খাতগুলোতে বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ রাখা প্রয়োজন বলে মনে করেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী। যে এলাকায় যে শিল্পের কাঁচামাল প্রাপ্তি সহজ, সেখানে সে রকম শিল্প-কারখানা গড়ে তোলা প্রয়োজন। এতে কাঁচামালের সঠিক ব্যবহার হওয়ার পাশাপাশি উৎপাদন ও পরিবহন ব্যয় কম পড়বে। আগামী বাজেট নিয়ে নিজের প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করতে গিয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিনের কাছে এমন মন্তব্য করেন ফারুক মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও শিল্প-কারখানা স্থাপনের দিক থেকে সিলেট অঞ্চল অনেক পিছিয়ে রয়েছে। অথচ এখানে শিল্প-কারখানা গড়ে তোলার অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। ২০১০ সালে দেশে ‘বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল’ স্থাপন বিল পাস হয়েছে। সরকারকে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের ধারণাটা সিলেট চেম্বার অব কমার্সই দিয়েছিল। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে এ রকম অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপিত হলেও সিলেটে এখনো আশ্বাসের মধ্যে সীমাবদ্ধ রয়েছে। অথচ প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটে এ রকম উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে দেশীয় বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী ভারতের অনেক শিল্পপ্রতিষ্ঠান এখানে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী হবে। তাই আগামী বাজেটে শিল্প খাতে পিছিয়ে পড়া সিলেটের জন্য বিশেষ বরাদ্দ প্রয়োজন। সিলেটে নির্মিতব্য হাইটেক পার্কের কাজে ধীরগতির কথা উল্লেখ করে ফারুক মাহমুদ বলেন, প্রযুক্তিভিত্তিক এই বিশেষ প্রকল্প নিয়ে সিলেটের মানুষের মধ্যে বিশেষ আগ্রহ দেখা দিয়েছিল। কিন্তু প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতির কারণে বিনিয়োগকারীরা আগ্রহ হারাচ্ছেন। প্রকল্পটির পূর্ণ বাস্তবায়নের জন্য বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ প্রয়োজন। করোনা পরিস্থিতিতে নতুন করে দেশের প্রায় আড়াই কোটি মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে এসেছে। আগামী বাজেটে এই বৃহৎ জনগোষ্ঠীর জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন। এদের অর্থনৈতিক অবস্থা আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নিতে দেশের অর্থনীতিকে আরও গতিশীল করতে হবে। নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে। বিশেষ প্রণোদনার আওতায় নিয়ে তাদের বর্তমান অবস্থার উন্নতি ঘটাতে হবে। এ জন্য বাজেটে আলাদা বরাদ্দ রাখা প্রয়োজন। ইতিমধ্যে সরকার যেসব প্রণোদনামূলক উদ্যোগ নিয়েছে, সেগুলোর যথাযথ বাস্তবায়ন ঘটানো প্রয়োজন বলেও মনে করেন নাগরিক সমাজের এই প্রতিনিধি। ফারুক মাহমুদ বলেন, ব্যবসাবান্ধব বাজেটের নামে যাতে শুধু কতিপয় ব্যবসায়ীর পকেটের উন্নয়ন না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখা প্রয়োজন। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও দুর্নীতি বন্ধের স্বার্থে বিদেশে দুর্নীতিবাজদের পাচার করা অর্থ ফিরিয়ে আনারও উদ্যোগ নেওয়া দরকার।

এই বিভাগের আরও খবর