শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪ ০০:০০ টা
কীভাবে ফিরবে ক্যাম্পাসের পরিবেশ

ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

--- নাছির উদ্দিন নাছির

শফিকুল ইসলাম সোহাগ

ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

বিএনপির ছাত্রসংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন নাছির বলেছেন, শিক্ষাঙ্গনে সুস্থ ও স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সর্বস্তরের শিক্ষার্থীদের ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে তিনি একথা বলেন। এ সময় তিনি শিক্ষাঙ্গনে বিদ্যমান পরিবেশ, ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একচ্ছত্র আধিপত্য, দখলদারিত্ব, চাঁদাবাজিসহ নানা অনিয়ম-দুর্নীতি এবং সন্ত্রাসের সমালোচনা করেন। একই সঙ্গে শিক্ষাঙ্গনে বিদ্যমান সব সংকট নিরসনে ছাত্রদলের চলমান উদ্যোগ ও প্রচেষ্টার বিষয়গুলো তুলে ধরেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাছির উদ্দিন নাছির।

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দেশ স্বাধীনের পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে দখলদারিত্ব, সন্ত্রাস, পিটিয়ে মানুষ মেরে ফেলার বিষয়গুলো জড়িত।’ তিনি বলেন, ‘২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসার পর তাদের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসগুলোতে আরও ভীতিকর পরিবেশ তৈরি করেছে। হল দখল, সন্ত্রাস রাহাজানি- এমনকি চুরি-ডাকাতির সঙ্গে তারা জড়িত। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী হত্যাকান্ডের শিকার হচ্ছে। বুয়েটে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এর আগে বিশ্বজিৎকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে মেরেছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র হত্যা করা হয়েছে। একইভাবে চট্টগ্রাম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের খুন করা হয়েছে। গত এক দশকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংগঠিত গুম-খুনের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরাও অনিয়ম করে চলেছে।’

নাছির উদ্দিন নাছির বলেন, ‘সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রতিক সময়ে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা ক্যাম্পাসে ধর্ষণ করেছে। ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে ধর্ষণের যোগসূত্র রয়েছে। তখনকার ছাত্রলীগ নেতা জসিমউদ্দিন মানিক ১০০ ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়ে সেঞ্চুরি উদযাপন করেছে। দখলদারিত্বের রাজনীতি, ধর্ষণের রাজনীতি, পিটিয়ে মানুষ মেরে ফেলা ছাত্রলীগের প্রায় পাঁচ দশকের প্রতিচ্ছবি।

‘বিদ্যমান এ সংকট থেকে উত্তরণের উপায় কী?’ জানতে চাইলে নাছিরউদ্দিন নাছির বলেন, ছাত্রদল সবসময় গণতান্ত্রিক মূল্যবোধে বিশ্বাসী। শিক্ষা ঐক্য প্রগতির পতাকাকে সামনে রেখে সাম্য ও মানবিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অনবদ্য শপথ নিয়ে বিএনপি যে স্বপ্ন দেখছে- সেই স্বপ্ন বিনির্মাণে ছাত্রদল কাজ করে চলেছে। একই সঙ্গে দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন, সার্বভৌমত্ব রক্ষা, সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ের জন্য ছাত্রদলের পাঁচ দশকের যে পথচলা- সে বিষয়টি আরও বেশি ত্বরান্বিতের চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, শিক্ষাঙ্গনে ছাত্রলীগের চলমান সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আমরা ঐক্যবদ্ধ করতে চাই। এ সময় তিনি ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য সর্বস্তরের শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, শিক্ষাঙ্গনে প্রকৃত শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্ল্যাটফরমে ছাত্রদল সবসময় পাশে থাকবে।

‘সামগ্রিকভাবে শিক্ষার পরিবেশ কেমন হওয়া উচিত?’ এ প্রশ্নের জবাবে ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক বলেন, কয়েক বছর আগেও মেয়েরা এসএসসি পাস করেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেছেন। বর্তমানে ওইসব শিক্ষক শিক্ষার্থীদের অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াবেন। এসব শিক্ষকের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। এ ছাড়াও প্রশ্নপত্র ফাঁস, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে চরম দুর্নীতি চলছে। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের গণহারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। অথচ তাদের শিক্ষক হওয়ার ন্যূনতম যোগ্যতা নেই। শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ না দিয়েই নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে। এসব বিষয়েও সংশ্লিষ্টদের নজর দিতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর