শিরোনাম
২৯ নভেম্বর, ২০২২ ১৯:৩৬

‌‘রবীন্দ্র কাচারি বাড়িই হবে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্র’

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

‌‘রবীন্দ্র কাচারি বাড়িই হবে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্র’

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে. এম. খালিদ বলেছেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জমিতেই শান্তি নিকেতনের আদলে বিশাল ক্যাম্পাস নির্মাণ করা হবে। যেখানে শিক্ষার্থীরা মুক্ত বুদ্ধি ও সংস্কৃতির চর্চা করতে পারবে। এসময় মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবির প্রেক্ষিতে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে কাচারি বাড়িতে শিক্ষা ও সংস্কৃতির চর্চার ক্ষেত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে বলে ঘোষণা দেন। 

মঙ্গলবার বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজরিত শাহজাদপুর রবীন্দ্র কাচারি মিলনায়তনে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. শাহ্ আজম বলেন, কেবল পুথিগত বিদ্যার মধ্য দিয়ে তৈরী নয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংবেদনশীতার অনুশীলনে বিশেষ দৃষ্টি রেখেছে। তিনি বলেন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন সহশিক্ষামূলক সংগঠন শিক্ষার্থীদের মানবিক মননশীলতা গঠনে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে যাচ্ছে। অমর একুশে ২০২২-এর অনুষ্ঠান উদযাপনের মধ্য দিয়ে ঐতিহাসিক কাচারি বাড়ীর বকুল তলার হারানো সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে পুনরুজ্জীবিত করতে সক্ষম হয়েছে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়। এই বকুল তলায় মুক্তমঞ্চ প্রতিষ্ঠা করা হলে এটিই মুক্ত বুদ্ধি ও সংস্কৃতি চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হতে পারে বলে উল্লেখ করেন তিনি। 

অনুষ্ঠানকে ঘিরে কাচারি বাড়ীকে বর্নিল সাজে সাজানো হয়েছিল। শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শাহজাদপুরের বিশিষ্ট ব্যক্তি ও রবীন্দ্র প্রেমীদের সমাগমে মুখরিত হয়ে উঠেছিল কাচারিবাড়ি প্রাঙ্গণ। আলোচনা সভা শেষে নৃত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর