শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মার্চ, ২০২১ ২০:৪৭
প্রিন্ট করুন printer

গত বছর দেশে হার্ট অ্যাটাকে ১ লাখ ৮০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

গত বছর দেশে হার্ট অ্যাটাকে ১ লাখ ৮০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু
প্রতীকী ছবি

২০২০ সালে দেশে মোট ৮ লাখ ৫৪ হাজার ২৫৩ জন মানুষ বিভিন্নভাবে মারা গেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১ লাখ ৮০ হাজার ৪০৮ জন মারা গেছেন হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হয়ে।

আজ বুধবার এ তথ্য প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। বিবিএস অডিটরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গেল বছর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মানুষের মৃত্যু হয়েছে ব্রেন স্ট্রোকে। এতে মারা গেছেন ৮৫ হাজার ৩৬০ জন। আর কোভিড-১৯ এ মারা গেছেন ৮ হাজার ২৪৮ জন।

২০১৯ সালে বাংলাদেশে মোট মারা গিয়েছিলেন ৮ লাখ ২২ হাজার ৮৪১ জন। সে বছরও দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর কারণ ছিল হার্ট অ্যাটাক।

২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে ব্রেইন স্ট্রোকে মারা যাওয়ার সংখ্যা বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। ২০১৯ সালে ৪৫ হাজার ৫০২ জন ব্রেন স্ট্রোকে মারা যান, আর ২০২০ সালে মারা যান ৮৫ হাজার ৩৬০ জন।

হার্ট অ্যাটাক ছাড়া অন্যান্য হৃদরোগে ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। ২০১৯ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৬৭ হাজার সাত জন মারা যান। আর ২০২০ সালে ৪৩ হাজার ২০৪ জন মারা যান।

কিডনি জটিলতায় ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে দ্বিগুণেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। ২০১৯ সালে কিডনি রোগে মারা যান ১০ হাজার ৬২২ জন, আর ২০২০ সালে ২৮ হাজার ১৭ জন। 

২০১৯ সালের তুলনায় অপুষ্টিতে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। ২০১৯ সালে অপুষ্টির শিকার হয়ে মারা গিয়েছিলেন ১৭ হাজার ৩০৯ জন, আর ২০২০ সালে ৮ হাজার ৭৭২ জন। 

২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যাও কমেছে। ২০১৯ সালে ডেঙ্গুতে মারা যান ২ হাজার ৩৬০ জন, আর চিকুনগুনিয়ায় চার হাজার ৪৫৮ জন। ২০২০ সালে ডেঙ্গুতে মারা যান ৭৮৬ জন, আর চিকুনগুনিয়ায় ৫২৪ জন। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

এই বিভাগের আরও খবর