Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ মার্চ, ২০১৯ ১৩:১৩
আপডেট : ১৮ মার্চ, ২০১৯ ১৩:১৪

নিউইয়র্কে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালিত

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক

নিউইয়র্কে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালিত

নিউইয়র্কে উদযাপিত হলো সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস। ১৭ মার্চ নিউইয়র্ক সিটির ‘কুইন্স সেন্ট্রাল লাইব্রেরি’র চিলড্রেন্স ডিসকভারি সেন্টারে জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশন ও নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি।

অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপ-মন্ত্রী বলেন, যেভাবে দক্ষিণ আফ্রিকার শিশুরা নেলসন ম্যান্ডেলাকে জানবে, যেভাবে ভারতের শিশুরা মহাত্মা গান্ধীকে জানবে, ঠিক তেমনিভাবেই বাংলাদেশের শিশুরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানকে জানবে। জাতির পিতা তার অবিসংবাদিত নেতৃত্বের মাধ্যমে জেল-জুলুম, অত্যাচার-নির্যাতন, কারাবরণ সহ্য করে আমাদের শিশুদের জন্য এক স্বপ্নময় স্বাধীন-স্বার্বভৌম বাংলাদেশ উপহার দিয়ে গেছেন। তাই দেশ ও প্রবাসের সকল বাঙালি শিশু জাতির পিতার আদর্শ ধারণ করে বড় হয়ে উঠবে, এটাই আমার প্রত্যাশা।

তিনি শিশুদেরকে বাংলায় ও ইংরেজিতে প্রকাশিত ‘মুজিব গ্রাফিক্স নভেল’ পাঠ করার পরামর্শ দেন এবং কুইন্স লাইব্রেরিতে বইটি অন্তর্ভূক্ত ও সংরক্ষণ করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান। এ অনুরোধে সাড়া দেন কুইন্স লাইব্রেরি কর্তৃপক্ষ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। তিনি উপস্থিত শিশুদেরকে বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ থেকে অংশবিশেষ পাঠ করে শোনান। স্থায়ী প্রতিনিধি বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন, শিশুর জীবন করো রঙিন’ উল্লেখ করে সকলকে শিশুদের জীবনকে আরও রঙিন করতে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান।

শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন নিউইয়র্কের বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা। স্বাগত বক্তব্যে তিনি জাতির পিতার জন্মদিন এবং বাংলাদেশের জাতীয় শিশু দিবসের এই আয়োজনের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারাকে সম্পৃক্ত করার প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন।

কনসাল জেনারেল আরও জানান, কুইন্স লাইব্রেরিতে জাতির পিতার ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ এবং ‘কারাগারের রোজনামচা’ বই দুটি সর্বজনের পাঠের জন্য সরবরাহ করা হয়েছে এবং তা এখানেও প্রদর্শিত হচ্ছে। এছাড়া ইতোমধ্যে কুইন্স লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বইসহ বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্বলিত বই দিয়ে ‘বাংলা সেন্টার’ স্থাপন করার জন্য লাইব্রেরি কর্তৃপক্ষের সাথে কনস্যুলেট জেনারেল অফিস কাজ করছে,। আগামী বছর জাতির পিতার জন্ম-শতবার্ষিকী আরও বৃহৎ কলেবরে উদযাপন করার প্রত্যাশার কথাও জানান কনসাল জেনারেল।

কুইন্স লাইব্রেরির প্রতিনিধি মাহেন্দ্র ইন্দ্রজিৎ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের সাথে যৌথভাবে কাজ করতে পেরে লাইব্রেরি সমৃদ্ধ হচ্ছে মর্মে অভিমত ব্যক্ত করেন। কুইন্স লাইব্রেরি এর ফাশিং অডিটোরিয়ামে বহুভাষা ও বহুজাতিক আবহে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠান যৌথভাবে স্থায়ী মিশন ও কনস্যুলেট জেনারেলের সাথে উদযাপন করেছে মর্মে উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের সাথে আমাদের এই সাংস্কৃতিক বিনিময় অব্যাহত থাকবে।

দিবসটি উপলক্ষে শিশুদের জন্য চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজনের পাশাপাশি শিশুদের উপস্থাপনা ও পরিবেশনায় প্রশংসিত হয়। 
প্রতিযোগিতায় বয়সের ভিত্তিতে শিশুদের ‘ক’, ‘খ’ ও ‘গ’ গ্রুপে বিভক্ত করা হয়। ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য নির্ধারিত ছিল চিত্রাঙ্কন যার বিষয় ছিল যথাক্রমে ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা’ ও ‘সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশ’। আর ‘গ’ গ্রুপের জন্য নির্ধারিত ছিল ‘বৈশ্বিক নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু’ বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতা। এতে স্থানীয় প্রবাসী বাঙালি, বাংলাদেশ মিশন ও কনস্যুলেট পরিবারের ৭৫ জন শিশু অংশগ্রহণ করে।

উপমন্ত্রী বিজয়ী শিশুদের মাঝে 'বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতি সম্বলিত ক্রেস্ট' এবং অংশগ্রহণকারী অন্যান্য শিশুদের মেডেল প্রদান করেন। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ক-গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করে শ্রেষ্ঠা দেবনাথ এবং খ গ্রুপে শিশু অপর্ণা আমিন। রচনা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে নির্ঝর দেবনাথ। পরে সমবেত শিশুরা কেক কেটে জাতির পিতার জন্মদিন উদযাপন করে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ
বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী  উপলক্ষে ১৭ মার্চ সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা হয় জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে। সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আকতার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি। আলোচনায় অংশগ্রহণকারি নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন আব্দুস সামাদ আজাদ, লুৎফুল করিম, শামসুদ্দিন আজাদ, আইরিন পারভিন, মহিউদ্দিন দেওয়ান, আবুল হাসিব মামুন, আশরাফুজ্জামান, মোজাহিদুল ইসলাম, আবুল মনসুর খান, এম এ মালেক, মোর্শেদা জামান, জাহাঙ্গির হোসেন, মমতাজ শাহনাজ, সোলায়মান আলী, মাসুদুল হাসান প্রমুখ। এ সময় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান সমবেত নেতা-কর্মীরা। 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য