প্রকাশ : ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৮:৫১
আপডেট : ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৮:৫৬
প্রিন্ট করুন printer

নানা আয়োজনে তুরস্কে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

অনলাইন ডেস্ক

নানা আয়োজনে তুরস্কে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

তুরস্কে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে। বুধবার বাংলাদেশে দূতাবাস, আঙ্কারায় বিজয় দিবস পালন করা হয়।

সকালে তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর আবক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করার মাধ্যমে দিবসটি পালনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করা হয়।

এরপর রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান ও তার সহধর্মীনি, দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তুরস্কে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের উপস্থিতিতে দূতাবাস ভবনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু কর্নারের এবং বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কাজের ওপর আয়োজিত মাসব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

পরে দূতাবাসের ‘বিজয় একাত্তর’ মিলনায়তনে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত ও মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়।

শুরুতেই মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত প্রধানমন্ত্রীর বিজয় দিবসের উপর শুভেচ্ছা জ্ঞাপনের একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। এরপর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করে শোনান রাষ্ট্রদূত, মিশন উপ-প্রধান মো. রইস হাসান সরোয়ার, দূতাবাসের সামরিক উপদেষ্টা ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. রাশেদ ইকবাল ও প্রথম সচিব সবুজ আহমেদ।  

আলোচনাপর্বে আঙ্কারাস্থ এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সেলজুক চোলাকউলু, আঙ্কারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক মাঈনুল আহসান ও আঙ্কারস্থ আইওএম-এর কর্মকর্তা অনুপ কুমার দাশ বিজয় দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে আবেগঘন বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানটি দূতাবাসের প্রথম সচিব ও দূতালয় প্রধান সবুজ আহমেদের সঞ্চালনা এবং হাজিত্বেপ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নাবিহা তাহরীমের উপস্থাপনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। 

রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যূদয়, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এবং শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে বাংলাদেশের বিজয় অর্জন এবং তুরস্ক-বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন।

তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহীদদের স্মৃতির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ ও দূরদর্শী নেতৃত্বে সাম্প্রতিক বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপট বদলে যাওয়ার বিস্তারিত বিবরণ উপস্থিত অতিথিদের সামনে তুলে ধরেন।

উল্লেখ্য, দূতাবাস বিজয় দিবস উপলক্ষে তুর্কী ভাষায় একটি ব্রসিউর ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে একটি বিশেষ ল্যাপেল পিন প্রকাশ করে, যা অনুষ্ঠানে আগত সকলের মধ্যে বিতরণ করা হয়। এছাড়া Dunya Daily নামক স্থানীয় একটি পত্রিকায় বিজয় দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ওপর একটি বিশেষ ক্রড়পত্র প্রকাশিত হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর