শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:২২

আলোকিত হচ্ছে ময়মনসিংহ

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

আলোকিত হচ্ছে ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) এলাকার ১৮২ কিলোমিটার সড়কে বসছে এলইডি, এনার্জি সেভিংস ও সোলার বাতি। বিভিন্ন সড়কে লাগানো হচ্ছে পোলসহ ৬ হাজার ৬৬৭টি বাতি। যার ব্যয় হচ্ছে ৪৯ কোটি টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ৮ লাখ মানুষ উপকৃত হবে।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে এই প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে মসিকের প্রকৌশল বিভাগ এবং সাইফ পাওয়ারটেক ও প্রোপার্টি লিমিটেড। ইতিমধ্যে ওই দুই প্রতিষ্ঠানকে প্রায় ২৫ কোটি টাকার কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে। বাকি কার্যাদেশও দ্রুত সময়েই দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। গত ২৭ ডিসেম্বর সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু এ প্রকল্পের আওতায় নগরীর রহমতপুর ময়মনসিংহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত সড়কটি আলোকিত করার কাজ উদ্বোধন করেন।

মসিকের প্রকৌশল বিভাগ জানায়, নগরীর ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ২১ নম্বর ওয়ার্ড পর্যন্ত সব সড়ক এ বাতির আওতায় আসছে। আর ২২ থেকে ৩৩ নম্বর নতুন ওয়ার্ডগুলোর প্রধান সড়ক এ প্রকল্পের আওতায় আসবে। তাছাড়া অলিগলির বাতিগুলো সোলার সিস্টেমে হওয়ার কথা রয়েছে।

সূত্র জানায়, রাতের বেলা নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য ১ হাজার ৩০৩টি শেডসহ এনার্জি সেভিংস ল্যাম্প ও ৫ হাজার ৩৭০টি শেডসহ এলইডি বাতি স্থাপিত হবে। এছাড়া নগরী আলোকিত করতে ৩৬৬টি সোলার প্যানেল, ২৭০টি গার্ডেন লাইট, ৬ হাজার ৬৭৩টি ইলেকট্রিক্যাল পোল, ৩ লাখ ৪৩ হাজার ১১৭ মিটার সার্ভিস তার ও ৭৭টি বৈদ্যুতিক মিটার বসানো হবে। নগরীকে ঢেলে সাজাতে প্রকল্পের আওতায় আরও উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে মসিক জানিয়েছে। ৩ ফেইসের ৫৯টি বিদ্যুৎ সংযোগ, ৭৭টি এমসিসিবি, ৬০৮ ঘনমিটার পোলের সিসি ওয়ার্ক কেনা হবে। এছাড়া স্ট্রিট লাইট স্থাপন ও প্রতিস্থাপনের জন্য একটি বিম লিফটার এবং ইলেকট্রিক পোল পরিবহন ও ইরেকশনের জন্য একটি ক্যাটারপিলার স্থাপন করা হবে। সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, নিরাপদ ময়মনসিংহ গড়ার যে প্রত্যয় আমরা ব্যক্ত করেছিলাম, প্রধানমন্ত্রীর বদান্যতায় সেই কাজ আমরা হাতে নিতে পেরেছি। অচিরেই নগরবাসীকে একটি আলোকিত নগরী উপহার দিতে পারব।


আপনার মন্তব্য