শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ জুলাই, ২০২০ ১৬:০৩

কিউই কবি টোমোস রবার্টসের সাথে ডিপিএসটিএস স্কুলের শিক্ষার্থীদের ভার্চুয়াল সাক্ষাৎ

অনলাইন ডেস্ক

কিউই কবি টোমোস রবার্টসের সাথে ডিপিএসটিএস স্কুলের শিক্ষার্থীদের ভার্চুয়াল সাক্ষাৎ

কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারির প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে প্রয়োজনীয়তার নিরিখেই অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়টি বেশ গুরুত্ব পেয়েছে। 

দেশে সাধারণ ছুটি শুরু হওয়ার পর থেকেই ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকা প্রতিনিয়তই অনলাইনে ক্লাসসহ নানান কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এরই ধারাবাহিকতায়, প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি সুপরিচিত কবি ও ইউটিবার টমোস বরার্টসকে (যিনি ‘প্রবাবলি টম ফুলারি’ নামেও পরিচিত) নিয়ে একটি অনলাইন সেশনের আয়োজন করে। 

আয়োজিত এ অনলাইন সেশনে স্কুলটির শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দ অংশ নেন।   

বৈশ্বিক মহামারি পরবর্তী ঘুমপাড়ানি গল্পের মাধ্যমে রবার্টের কাব্যময়তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে এবং লক্ষাধিক মানুষের মন জয় করে নেয়। রবার্টের ‘দ্য গ্রেট রিয়ালাইজেশন’ নামের পদ্যটি গত ২৯ এপ্রিল ইউটিউবে প্রকাশ পায় এবং এটি বিশ্বজুড়ে ২৪ মিলিয়নেরও বেশিবার দেখা হয়েছে। এটি ইতিমধ্যেই স্বতন্ত্রভাবে আরবি, হিব্রু, জার্মান, স্প্যানিশ, ফরাসি, ইতালি ও রূশ ভাষায় অনূদিত হয়েছে। 

ঘুমপাড়ানি গল্পের ছলে এ পদ্যে করপোরেট লোভ, পারিবারিক বিচ্ছিন্নতা ও বৈশ্বিক মহামারি পটভূমি একটি সুন্দর সমাপ্তিতে শেষ হয়। এ পদ্যের মাধ্যমে ভবিষ্যতের কোনো একটা সময় থেকে অতীতের বৈশ্বিক মহামারি পরবর্তী সময়কে মূল্যায়ন করা হয় যেখান থেকে মানুষের জীবনে গভীর উপলব্ধি ঘটে। লকডাউনের সময়ে তার ভাই-বোনদের আনন্দ এবং শিক্ষাদানে এ প্রকল্প শুরু করেন টোমোস। যা পরবর্তীতে, সাফল্যের সাথে কার্যকর ঘরোয়া স্কুল শিক্ষা কার্যক্রমে পরিণত হয়েছে।  

ডিপিএস এসটিএস স্কুলের অ্যাকটিভিটিস ইন-চার্জ শালিনি আগারওয়াল সেশনটি সঞ্চালনা করেন। ৪০ মিনিট ধরে চলা এ সেশনটিতে প্রায় দুইশ’ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এ সেশনটিতে টমোস রবার্টস চলমান এ বৈশ্বিক সঙ্কট নিয়ে তার ভাবনাগুলো উপস্থিত সবার সাথে শেয়ার করেন এবং মহামারির কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতি কীভাবে আমাদের বুদ্ধিবৃত্তির চিন্তার বিন্যাসে প্রভাব ফেলছে তাও তুলে ধরেন। 

‘টোমোস রবার্টস বলেন, "ভবিষ্যতে, আমি বাংলাদেশে এসে ডিপিএস এসটিএস স্কুলে আসতে চাই ও এর শিক্ষার্থীদের সাথে দেখা করতে চাই।" 

তিনি শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে একটি প্রশ্নত্তোর পর্বেও অংশ নেন, যেখানে তিনি কবিতা এবং চলমান বৈশ্বিক মহামারি ঠেকাতে করণীয় বিষয়গুলো নিয়ে সবাইকে উৎসাহ দেন।

এ নিয়ে ডিপিএস এসটিএস স্কুলের অধ্যক্ষ মধু ওয়াল বলেন, ‘রবার্ট টমাসকে আমাদের মাঝে পেয়ে আমরা অত্যন্ত গর্বিত এবং একইসাথে আনন্দিত। যেমন করে তিনি তার শব্দের মাধ্যমে সারা বিশ্বকে উজ্জীবিত করছেন, তেমনি করেই আজ তিনি আমাদের সবাইকে অনুপ্রাণিত করেছেন। এ প্রতিকূল সময়ে, এ উদ্দীপনাই আমাদের সামনের দিনগুলোর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত করবে। আমাদের শিক্ষার্থীদের মাঝে উপস্থিত হয়ে তাদেরকে অনুপ্রাণিত করার জন্য আমি টমাসকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর