শিরোনাম
প্রকাশ : ২ মার্চ, ২০২১ ১৫:৪৮
আপডেট : ২ মার্চ, ২০২১ ১৯:২৫
প্রিন্ট করুন printer

ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠিকে কাজের সুযোগ দিচ্ছে জেএসএসএসএল

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠিকে কাজের সুযোগ দিচ্ছে জেএসএসএসএল

সিকিউরিটি ইন্ডাস্ট্রিতে শীর্ষস্থানীয় ও সবচেয়ে পেশাদার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠান জেএসএস সার্ভিসেস লিমিটেড (জেএসএসএসএল) সম্প্রতি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ফ্যাশন রিটেইলার এইচ অ্যান্ড এম-এর নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে ট্রান্সজেন্ডার (তৃতীয় লিঙ্গ) কর্মীদের নিয়োগ দিয়েছে।  

বাংলাদেশের ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠীর সদস্যরা এবারই প্রথম দেশের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা সেবা শিল্পে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে। বাংলাদেশে লিঙ্গ বিষয়ক গতানুগতিক ধারণা পরিবর্তন এবং সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরিতে এই উদ্যোগটি কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে বিশ্বাস করেন সংশ্লিষ্টরা। 

ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠী নিয়ে কাজ করা অনন্যা বণিক বলেন, “ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠী ও এর সদস্যরা দীর্ঘ দিন ধরেই অবহেলিত এবং তাদের নিজস্ব পরিচয় ও উত্তরাধিকার স্বীকৃতি পেত না। তবে সাম্প্রতিক সময়ে এই চিত্রপটে পরিবর্তন এসেছে। আশা করছি, এই জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে তাদের কাজের সুযোগ সৃষ্টিতে আরও অনেক প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসবে।”

এইচ অ্যান্ড এম-এর রিজিওনাল কান্ট্রি ম্যানেজার জিয়াউর রহমান বলেন, “এইচ অ্যান্ড এম-এ আমরা নিজস্বতায় বিশ্বাস করা এবং অন্যের স্বকীয়তাকে সম্মান জানাতে উৎসাহ দিয়ে থাকি। আমরা সর্বজনীনতায় বিশ্বাস করি এবং আমাদের ব্যবসা কার্যক্রম ও ভ্যালু চেইনের সর্বক্ষেত্রে বৈচিত্র্যকে স্বাগত জানাই। 

এর মধ্যে কাজের ক্ষেত্রে সর্বজনীন ও সমান সুবিধা প্রদানও অন্তর্ভুক্ত। আমরা অত্যন্ত আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, সমাজের কাছে ট্রান্সজেন্ডার হিসেবে পরিচিত জনগোষ্ঠীর কাজের ক্ষেত্রে নতুন সম্ভাবনা তৈরির লক্ষ্যে আমরা আমাদের সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর সহযোগিতায় কিছু সুস্পষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছি। এইচ অ্যান্ড এম তার পার্টনার প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় ৮ জন ট্রান্সজেন্ডার ব্যক্তিকে নিয়োগ প্রদানের মাধ্যমে বাংলাদেশে লিঙ্গ বিষয়ক গতানুগতিক ধারণা বদলে দিচ্ছে।

এই প্রচেষ্টার প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে এবং আমাদের সাপ্লায়ার ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের জন্য এটি অনুপ্রেরণামূলক হয়ে থাকবে। আমরা আমাদের নতুন সহকর্মীদের স্বাগত এবং সেইসাথে সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা জানাই।” 

ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়নের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে দেওয়া প্রসঙ্গে জেএসএসএসএল-এর সিইও মো: ফেরদৌস উর রহমান বলেন, “বাংলাদেশে ট্রান্সজেন্ডার মানুষেরা সামাজিকভাবে অবহেলিত এবং সমাজে প্রান্তিকভাবে তাদের বসবাস, শিকার হতে হয় নানা হয়রানি ও বঞ্চনার। আমাদের সমাজের এই সম্ভাবনাময় জনশক্তিকে কাজে লাগানোর উদ্দেশ্যে আমরা দীর্ঘদিন ধরে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।”

তিনি আরও বলেন, “ট্রান্সজেন্ডার জনগোষ্ঠীর সদস্যদের নিয়োগ প্রদানের উদ্দেশ্য কেবল তৃতীয় লিঙ্গ ইস্যুতে সচেতনতা তৈরি করাই নয়, বরং তাদের স্বনির্ভর করে তোলার মাধ্যমে মানুষ হিসেবে সমাজে তাদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করাও এর অন্যতম লক্ষ্য।”

সামাজিক অসমতা নিরসনের লক্ষ্যে গত বছরের নভেম্বরে মন্ত্রীসভার একটি মিটিংয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য নতুন উত্তরাধিকার আইনের খসড়া তৈরির ঘোষণা দেয়, যা সত্যিই প্রশংসনীয় একটি উদ্যোগ। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর