শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০২:২৯

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের পাশে

বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের পাশে

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে বুধবার বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম দিনে বিশ্বব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা এবং দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যানেট ডিক্সনের সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে বিশ্বব্যাংক ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের দফতর থেকে জানানো হয়েছে। এদিকে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতেও গতকাল এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী ওয়াশিংটনে সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, মিয়ানমার থেকে আসা অসহায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বিশ্বব্যাংকের দুই কর্মকর্তা বাংলাদেশের প্রশংসা করেছেন। বিশ্বব্যাংকও রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতে চায়, সহায়তা করতে চায়। আমরা তদের সহায়তা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তারা কী পরিমাণ সহায়তা দেবে, সে সহায়তার কতটা অনুদান হবে, কতটা ঋণ হবে; নাকি পুরোটাই ঋণ হবে তা আমরা দুই পক্ষ বসে ঠিক করব। শিগগিরই বিশ্বব্যাংকের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফরে যাবে। তারা বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে এবং বাস্তব পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সার্বিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানানো হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংকের এই সহায়তার কিছু অংশ যদি ঋণও হয়, তার সুদের হার হবে ‘খুবই সামান্য’। এটা নিয়ে ‘বিচলিত হওয়ার মতো কিছু’ তিনি দেখছেন না। এর আগে বিশ্বব্যাংক ঢাকা কার্যালয়ের প্রধান চিমিয়াও ফান ২৭ সেপ্টেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে রোহিঙ্গাদের জন্য ঋণ দেওয়ার বিষয়টি প্রথম সামনে আনেন। বুধবার বিশ্বব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, রোহিঙ্গাদের সহায়তার ব্যাপারে তারা খুবই আগ্রহ প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশ এই তহবিলের কী পরিমাণ পাবে, শর্ত কী হবে সেসব বিষয়ে দ্রুতই সিদ্ধান্ত হবে। বিশ্বব্যাংকের সিইও ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত খুলে দিয়ে বাংলাদেশ যে ভূমিকা রেখেছে তার জন্য আমরা সম্মান জানাই এবং প্রশংসা করি। আমরা বাংলাদেশের সহায়তার জন্য যা করা সম্ভব তার পুরোটাই করব। আমাদের একটি রিফিউজি সহায়তা উইনডো আছে; সেখান থেকে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে পারলে আমরা সম্মানিত বোধ করব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর