শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫৫

সিলেটে পর্যটকের ঢলে হোটেলে কক্ষসংকট

অনেকে বাধ্য হয়ে বাড়ি ফিরছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে পর্যটকের ঢলে হোটেলে কক্ষসংকট

হোটেলের সামনে নোটিশ টানানো ‘দুঃখিত কক্ষ খালি নেই’। আগামী তিন দিনের মধ্যে খালি হওয়ার কোনো সম্ভাবনাও নেই। তারপরও আশায় আশায় হোটেলের বারান্দার সিঁড়িতে বসে আছেন পর্যটকরা। পরিবার নিয়ে সিলেটে বেড়াতে এসে হোটেলে কক্ষ না পেয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন তারা। টানা তিন দিনের ছুটিতে পর্যটকদের ঢল নামায় হোটেলে কক্ষ সংকট দেখা দেওয়ায় তৈরি হয়েছে এ ভোগান্তি। গতকাল ছিল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ছুটি। আজ ও আগামীকাল সাপ্তাহিক সরকারি ছুটি। সব মিলিয়ে টানা তিন দিনের ছুটিতে সিলেটে এবার ঢল নেমেছে পর্যটকদের। সিলেটের জাফলং, বিছানাকান্দি, রাতারগুল, পাংথুমাইসহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র ঘুরে দেখতে গতকাল সিলেটে অন্তত ১০ হাজার পর্যটক এসেছেন বলে ধারণা হোটেল মালিকদের। এক সঙ্গে এত সংখ্যক পর্যটকের আগমনে সিলেটের হোটেলগুলোতে দেখা দিয়েছে কক্ষ সংকট। গতকাল সকাল থেকে দেখা গেছে, বেড়াতে আসা পর্যটকরা এক হোটেল থেকে অন্য হোটেলে ঘুরতে। কোথাও কক্ষ না পেয়ে অনেকে আশ্রয় নিয়েছেন হোটেলের বারান্দায়। অনেকে আবার ঠাঁই নিয়েছেন হযরত শাহজালাল (রহ.)-এর মাজারে। এদিকে হোটেলে কক্ষ না পেয়ে অনেকে সারা দিন ঘোরাঘুরি করে রাতেই সিলেট ছাড়তে বাধ্য হন।

. চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা ফজলুর রহমান জানান, সিলেট আসার আগে কয়েকটি হোটেলে অনলাইনে রুম বুকিং দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু না পেয়ে ভেবেছিলেন সিলেট এলে হয়তো কোনো হোটেলে ঠিকই ঠাঁই হবে। কিন্তু স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে সিলেটে এসে মহাবিপদে পড়েছেন। সকাল ৬টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত নগরীর জিন্দাবাজার, বন্দরবাজার, আম্বরখানা ও দরগাগেইটসহ বিভিন্ন এলাকার হোটেলগুলোতে ঘুরেও কক্ষ খালি পাননি। তাই বাধ্য হয়ে সন্ধ্যায় ফিরে যাচ্ছেন। হোটেল মালিকরা জানান, এক সপ্তাহে আগেই সিলেটের সবকটি হোটেলের বেশিরভাগ কক্ষ ভাড়া হয়ে যায়। বুধবার যারা সিলেটে বেড়াতে এসেছেন তারা কিছু কক্ষ খালি পেয়েছেন। কিন্তু অগ্রীম বুকিং না দিয়ে যারা গতকাল এসেছেন তাদের কেউই হোটেলে উঠতে পারেননি। এবার টানা তিন দিনের ছুটিতে অন্যবারের চেয়ে বেশি পর্যটক সিলেটে এসেছেন বলে জানান হোটেল ব্যবসায়ীরা। সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারের হোটেল গোল্ডেন সিটির মহাব্যবস্থাপক মিষ্টু দত্ত জানান, এবার তিন দিনের ছুটিতে এত পর্যটকের আগমন ঘটবে তা আগে চিন্তাই করা যায়নি। এ তিন দিনই নয়, আগামী এক সপ্তাহ সিলেটের বেশিরভাগ হোটেলের কক্ষ পূর্ণ হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

 


আপনার মন্তব্য