শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:৫৪

ভাগ্নির বাসায় খালাকে গণধর্ষণ

কুমিল্লায় ধর্ষিত স্কুলছাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেট মহানগর পুলিশের বিমানবন্দর থানাধীন বনকলাপাড়ার নূরানী আবাসিক এলাকার কলোনিতে এক তরুণীকে (২৬) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তিনি তার ভাগ্নির বাসায় বেড়াতে এসেছিলেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, গত রবিবার বিকালে সিলেট নগরীর বনকলাপাড়ার নিজের ভাগ্নির বাসায় বেড়াতে আসেন ওই তরুণী। তিনি ওইদিন ভাগ্নির বাসায় থেকে যান। রাতে ভাগ্নি ও তার স্বামীর সঙ্গে একই ঘরে ঘুমান ওই তরুণী। ঘরের ফ্লোরে ঘুমিয়ে ছিলেন তিনি। দিবাগত রাত ২টার দিকে নিজাম উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন জলিল ও দুদু মিয়া ঘরে প্রবেশ করে। তারা তরুণীর ভাগ্নির জামাইকে মারধর করে। এ সময় তার পকেটে থাকা একটি স্যামসাং জে-১ মডেলের মোবাইল ফোন ও তার স্ত্রীর কেক্সেস কোম্পানির একটি ফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তিন যুবক ওই তরুণীর স্বামীকে প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ঘর থেকে বের করে দেয়। তারা টেনেহিঁচড়ে ওই তরুণীকে ঘর থেকে বের করে পাশের একটি গলিতে নিয়ে গণধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে সোমবার বিমানবন্দর থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিন ধর্ষককে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায়। মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার জেদান আল মুসা জানান, ধর্ষিতা ওই তরুণীর বাড়ি সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার চৌধুরী বাজার এলাকায়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- নগরীর জালালাবাদ থানাধীন মইয়ারচরের (চৌধুরী বাড়ির পেছনে) সফর আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিন (২৪), বনকলাপাড়ার ১০৮/২নং বাসার মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে আনোয়ার হোসেন জলিল (৩৫) ও হবিগঞ্জের আজমিরিগঞ্জ উপজেলার জলশোকা গ্রামের মৃত তমিল খানের ছেলে দুদু মিয়া (২৮)। নিজাম বনকলাপাড়ার ১৩২/২নং বাসায় এবং দুদু একই এলাকার ১১২ নং বাসায় বসবাস করছিল। ধর্ষিতা ওই তরুণী ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওসমানী হাসপাতালে রয়েছেন।

কুমিল্লায় ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত : কুমিল্লা প্রতিনিধি জানান, কুমিল্লার বুড়িচংয়ের কদমতলী বৈশাখী মেলা থেকে বাড়ি ফেরার পথে ৪র্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে ট্রাকচালক। পরে স্থানীয়রা ওই ট্রাকচালক মো. শাহ আলমকে (৪২) আটক করেন। পরে তাকে গণধোলাই দিয়ে বুড়িচং থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদী হয়ে বুড়িচং থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী গত রবিবার বাড়ির অদূরে কদমতলী কালিবাড়ী বৈশাখী মেলায় যায়। বাড়ি ফেরার পথে ইন্দ্রবতী হাশেম মাস্টারের পারিবারিক কবরস্থানের পূর্ব পাশে পার্শ্ববর্তী মহিষমারা গ্রামের হামদু মিয়ার ছেলে শাহ আলম শিশুটিকে নির্জন বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে।

ফেনীতে প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১ : ফেনীর সোনাগাজীতে দুই সন্তানের জননী এক প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার ভোরে উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর সহায়তায় পুলিশ নুর আলম নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। নুর একই গ্রামের আবদুল হালিমের ছেলে। পুলিশ ও নির্যাতিতের পরিবার জানায়, প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হলে পূর্বে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ২-৩ জন দুর্বৃত্ত ওই গৃহবধূকে মুখ চেপে নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। পরে তারা মুখ ও হাত-পা বেঁধে ওই গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

পরিবারের লোকজন খোঁজাখোঁজি করে সকালে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে। পরে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় পুলিশ ধর্ষক নুর আলমকে গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন। এতে একই গ্রামের নুর আলম ছাড়াও আপেল ও মোশারফ হোসেনকে আসামি করা হয়েছে। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর