শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুলাই, ২০১৯ ০২:২২

দৃশ্যমান হচ্ছে রমিজ উদ্দিন কলেজের আন্ডারপাস

বিশেষ প্রতিনিধি

দৃশ্যমান হয়ে উঠছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিশ্রুত ঢাকা-এয়ারপোর্ট রোডের শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের পথচারী আন্ডারপাস। গত বছরের ২৬ সেপ্টে¤¦র জরুরি ভিত্তিতে শুরু হওয়া প্রকল্পটির কাজ ৫০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশে সম্পূর্ণ নতুন এই প্রকল্পটিতে যে ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে তেমন প্রযুক্তি ব্যবহার করে আর কোনো প্রকল্প নির্মিত হয়নি। এ আন্ডারপাস নির্মাণ হলে সামরিক ও বেসামরিক জনগণের রাস্তা পারাপারে নিরাপত্তা নিশ্চিত সম্ভব হবে। গতকাল ঢাকা সেনানিবাসের সেন্ট্রাল অর্ডন্যান্স ডেপো (সিওডি) এলাকায় (শহীদ রমিজ উদ্দীন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিপরীতে) এ পথচারী আন্ডারপাস নির্মাণ প্রকল্পের অগ্রগতি এবং নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত প্রযুক্তি সম্পর্কে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)-এর ব্যবস্থাপনায় প্রেস ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন সেনাবাহিনীর ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল এস এম আনোয়ার হোসেন। ২৫ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল মোহাম্মদ সাদেক মাহমুদ এবং আইএসপিআরের পরিচালক লে. কর্নেল আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, গত বছরের ১২ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ আন্ডারপাস নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেন। এটি জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিবদ্ধ একটি নতুন অত্যাধুনিক প্রকল্প। প্রকল্পের কার্যক্রম গত বছরের ২৬ সেপ্টেম্বরে শুরু হয়। ব্রিফিংয়ে বলা হয়, ইতিমধ্যে প্রকল্পটির ৫০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। গত বছরের ২৯ জুলাই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঢাকা সেনানিবাস সংলগ্ন এমইএস বাসস্টপ এলাকায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় শহীদ রমিজ উদ্দীন স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুজন শিক্ষার্থী প্রাণ হারায়। এ দুর্ঘটনা ও জননিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ঢাকা এয়ারপোর্ট মহসড়কে বীরসপ্তক ক্রসিং পয়েন্টের কাছে পথচারী আন্ডারপাস নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি দিকনির্দেশনায় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর