শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ ২২:৫৬

গণসংযোগে প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি

দক্ষিণকে দুর্নীতিমুক্ত ও বাসযোগ্য করব

-------- ইশরাক

নিজস্ব প্রতিবেদক

দক্ষিণকে দুর্নীতিমুক্ত ও বাসযোগ্য করব

নির্বাচিত হলে সর্বপ্রথম ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে (ডিএসসিসি) দুর্নীতিমুক্ত,  নিরাপদ, বাসযোগ্য করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। তিনি বলেন, আমি মেয়র নির্বাচিত হলে সিটি করপোরেশনকে দুর্নীতিমুক্ত করব এবং ঢাকাকে বসবাসের যোগ্য করে তুলব। এ লক্ষ্যে সিটি করপোরেশনের যে ৫২টি প্রতিষ্ঠান আছে সবকটিকে একসঙ্গে নিয়ে কাজ করব। দুর্নীতিমুক্ত করার জন্য শুধু সরকারের সদিচ্ছা প্রয়োজন।’ গতকাল রাজধানীর আজিমপুর মোড়ে নির্বাচনী গণসংযোগ শুরুর সময় সংক্ষিপ্ত এক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, বিএনপি নেতা মীর সরাফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, এস এম জিলানী, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, রফিক শিকদার, শরিফ হোসেন, ওলামা দলের নেতা মাওলানা রফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন কাউন্সিলর প্রার্থী এবং স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী গণসংযোগে অংশ নেন।

এর আগে সকাল ১০টায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ইশরাক হোসেন। মোনাজাত শেষে আজিমপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে গতকালের গণসংযোগ কর্মসূচি শুরু করেন তিনি। সেখান থেকে ছাপরা মসজিদ, আজিমপুর কবরস্থান, জগন্নাথ সাহা রোড ও লালবাগে এসে তা শেষ করেন।

নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের বিষয়ে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘তারিখ নির্ধারণের সময়ই নির্বাচন কমিশনের উচিত ছিল হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের পূজার বিষয়টা বিবেচনা করা। তাহলে আজকে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের কারণে শিক্ষার্থীদের যে বিপাকে পড়তে হয়েছে, তা পড়তে হতো না। এর পরও দেরিতে হলেও নির্বাচন কমিশন হিন্দুধর্মের মানুষের ধর্মীয় অনুষ্ঠান বিবেচনা করে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করেছে। সেই সিদ্ধান্তকে আমি সাধুবাদ জানাই।’

সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে আজিমপুর মোড় থেকে আজিমপুর কবরস্থান এলাকার দিকে গণসংযোগ করেন ইশরাক হোসেন। এ সময় তার সঙ্গে থাকা কয়েক হাজার নেতা-কর্মী ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চেয়ে স্লোগান দেন।

এর আগে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আগামী ১ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনকে বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করার ষড়যন্ত্র চলছে। এ ব্যাপারে আপনাদের সজাগ থাকতে হবে। কারণ ১ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন হচ্ছে ঢাকাকে ধ্বংসের কবল থেকে রক্ষা, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির একটি সুযোগ। আপনারা কোনোভাবেই সেই সুযোগ হাতছাড়া করবেন না। নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে যাবেন এবং ভোট দেবেন।’

তিনি বলেন, ‘নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে বর্তমানে ঢাকা পৃথিবীর সবচেয়ে অবাসযোগ্য একটি শহরে পরিণত হয়েছে। এই সরকার দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতায় থেকেও এই শহরের পরিবর্তন আনতে পারেনি। তাই একটি পরিবর্তন দরকার। ১ ফেব্রুয়ারি আপনাদের ভোটের মাধ্যমে সেই পরিবর্তন সম্ভব।’

মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইশরাক আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, ‘আজকে আমার বাবা নেই। আপনারাই আমার অভিভাবক। আপনাদের দোয়ায় আমি ইশরাক হোসেন কোনো কিছুকে ভয় করব না। নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত আপনারা মাঠে থাকবেন। আপনাদের পাশে আমি আছি এবং থাকব।’

এ সময় ‘সিল মারো ভাই সিল মারো, ধানের শীষে সিল মারো’ স্লোগানে মুখরিত হয় রাজধানীর আজিমপুর এলাকা।

গণসংযোগে ফুল ছিটিয়ে অভিনন্দন : ইশরাক হোসেনের গণসংযোগ চলাকালে রাজধানীর লালবাগ এলাকায় বহুতল আবাসিক ভবনের ওপর থেকে ফুল ছিটিয়ে তাকে অভিনন্দন জানান সাধারণ ভোটাররা। এ সময় ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন তাদের হাত নেড়ে শুভেচ্ছার জবাব দেন।

পোস্টার ছেঁড়া ছোটলোকি কাজ : ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে বিএনপির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টার লাগাতে বাধা দেওয়া ও ছেঁড়া হচ্ছে প্রতিদিন। বিভিন্ন এলাকা থেকে এসব অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন ও পুলিশকে অবহিত করা হলেও এর কোনো প্রতিকার মিলছে না।

গতকাল সকালে শান্তিনগর মোড় এলাকায় ও হাবিবুল্লাহ্ বাহার কলেজের সামনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন ও কাউন্সিলর আশরাফুল ইসলামের ছেঁড়া পোস্টারের স্তূপ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ প্রসঙ্গে ইশরাক হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘পোস্টার ছেঁড়া ছোটলোকি কাজ। পোস্টার ছেঁড়ার মাধ্যমে জনগণের মন থেকে আমাদের মুছে ফেলতে পারবে না। বিএনপি গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে। এই নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য রাজনৈতিক দল হিসেবে আমাদের যা যা করণীয় তা-ই করব।’ তিনি বলেন, ‘জনগণ ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে। যদি নির্বাচন কমিশন ন্যূনতম সুষ্ঠু ভোট দিতে সক্ষম হয়, তবে আমাদের বিজয় কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর